close

অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

নায়িকা হওয়ার আগে হোটেলের বাথরুমও পরিষ্কার করেছেন ইনি!

Untitled-1 copy

 

শাহরুখ খানের সঙ্গে ‘রইস’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় পাকিস্তানের সুপারস্টার মাহিরা খানের। মাহিরা পাকিস্তান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পান।

 

জীবনের নানা চড়াই উৎরাই পেড়িয়ে নিজেকে সফলতার শিখরে নিয়ে গেছেন এই অভিনেত্রী।

 

 

 

তবে শুরটা মোটেও ভালো ছিলনা মাহিরার। করাচিতে পড়াশোনা শেষ করে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়াতে ইংরেজি সাহিত্য নিয়ে পড়তে যান মাহিরা। মাঝ পথে পড়াশোনা ছেড়ে অভিনয় জীবন শুরু করেন। অভিনয় জগতেপ্রবেশের আগে রেস্তোরাঁয় ওয়েট্রেসের কাজ করতেন তিনি।

 

 

ঘর ঝাড়া থেকে বাথরুম পরিষ্কার— সব কাজই করতে হয়েছে মাহিরাকে। পরে একটি দোকানেও কাজ করেছেন মাহিরা। সেখানেও ঘর ঝাড়া, ঘর মোছার কাজ করেছেন মাহিরা।

 

শাহরুখ খানের সঙ্গে ‘রইস’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় পাকিস্তানের সুপারস্টার মাহিরা খানের। মাহিরা পাকিস্তান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পান।

 

জীবনের নানা চড়াই উৎরাই পেড়িয়ে নিজেকে সফলতার শিখরে নিয়ে গেছেন এই অভিনেত্রী।

 

 

 

তবে শুরটা মোটেও ভালো ছিলনা মাহিরার। করাচিতে পড়াশোনা শেষ করে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়াতে ইংরেজি সাহিত্য নিয়ে পড়তে যান মাহিরা। মাঝ পথে পড়াশোনা ছেড়ে অভিনয় জীবন শুরু করেন। অভিনয় জগতেপ্রবেশের আগে রেস্তোরাঁয় ওয়েট্রেসের কাজ করতেন তিনি।

ঘর ঝাড়া থেকে বাথরুম পরিষ্কার— সব কাজই করতে হয়েছে মাহিরাকে। পরে একটি দোকানেও কাজ করেছেন মাহিরা। সেখানেও ঘর ঝাড়া, ঘর মোছার কাজ করেছেন মাহিরা।

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

Untitled-1 copy

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

নতুন আসিফ এর খুজে পেলো বাংলাদেশ … দেখুন ভিডিও……

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

পরিচালকের বাসায় রাত কাটালেন অভিনেত্রী প্রভা, করলেন রান্নাও………………

Untitled-1 copy

 

অভিনয় করতে গিয়ে নির্মাতার সঙ্গে অভিনেত্রীর ভাল সম্পর্ক গড়ে উঠবে এটাই স্বভাবিক। অনেক সময় সেটি পারিবারিক সম্পর্কের বেড়াজালেও আটকে যায়। এদিকে কোন ছক কষে নয়, হুট করেই পরিকল্পনাটি করে বসলেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভা।

তবে ঘটনাটা ঠিক কেমন? জানিয়েছেন সাদিয়া জাহান প্রভা নিজেই, গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে নির্মাতা সকাল আহমেদের বাসায় ছিলেন তিনি। সেই সঙ্গে করেছেন রান্নাও। তখন তারা যে আনন্দের সময় কাটিয়েছেন এমন কিছু ছবিই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করেছেন নির্মাতা সকাল।

 

 

 

 

ছবিতে দেখা যাচ্ছে ইলিশ মাছ আর ডিম ভাজি করছেন সাদিয়া জাহান প্রভা। আর তাকে সহযোগিতা করছেন নির্মাতা সকাল আহমেদের স্ত্রী ইসরাত আহমেদ।

সাদিয়া জাহান প্রভা এও জানিয়েছেন, তিনি পরিবারের অনুমতি নিয়েই গতরাতে এ নির্মাতার বাসায় এ ধরনের ঘরোয়া আয়োজনে সামিল হয়েছেন।

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

দেখুন ফজলুর রহমান বাবুর স্ত্রী, মেয়ে ও পরিবার সম্পর্কে কিছু গোপন তথ্য যা অনেকের কাছে অজানা !!

Untitled-1 copy

 

দেখুন ফজলুর রহমান বাবুর স্ত্রী, মেয়ে ও পরিবার সম্পর্কে কিছু গোপন তথ্য যা অনেকের কাছে অজানা !!দেখুন ফজলুর রহমান বাবুর স্ত্রী, মেয়ে ও পরিবার সম্পর্কে কিছু গোপন তথ্য যা অনেকের কাছে অজানা !!দেখুন ফজলুর রহমান বাবুর স্ত্রী, মেয়ে ও পরিবার সম্পর্কে কিছু গোপন তথ্য যা অনেকের কাছে অজানা !!

 

ভিডিও নিচে আসবে একটু অপেক্ষা করুন <<

 

https://youtu.be/uUeOctzvB04

 

 

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর

এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা।
ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে। প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য ।

আরোও পড়ূনঃ-

জেনে নিন যে ৩টি উপায়ে খাঁটি সোনা চিনতে পারবেন ??

বিয়ে, জন্মদিন কিংবা যেকোনো উৎসবে নিজেকে সাজাতে নারীদের প্রথম পছন্দ হলো সোনার গহনা। তবে শুধুমাত্র নারীর অঙ্গশোভা বাড়াতে নয়- আভিজাত্য এবং সম্পদ সংরক্ষণে যুগ যুগ ধরেই প্রাধান্য পায় সোনা। কিন্তু স্যাকরার দোকানে গিয়ে খাঁটি স্বর্ণ চিনতে না পারায় অনেক সময় ঠকতে হচ্ছে। আসলে সাধারণের পক্ষে খাঁটি স্বর্ণ চেনা কিন্তু সহজ কথা নয়।

জেনে নিন খাঁটি সোনা চেনার উপায়-

 

১। সোনা কিনুন ২৪ ক্যারটের– ২৪ ক্যারট সোনাই আসল খাঁটি সোনা। ২৪ ক্যারট সোনা মানে ৯৯.৯% শতাংশ খাঁটি সোনা। কিন্তু দোকানে সাধারণত ২৪ ক্যারট সোনা দিয়ে গয়না তৈরি হয় না। তাতে সেই সোনার অলঙ্কার বড্ড নরম হয়ে যাবে। তাই দোকানে সাধারণত ২২ ক্যারট সোনা দিয়েই অলঙ্কার তৈরি করা হয়। আপনি সেদিকটা খতিয়ে দেখে নেবেন যাতে ২২ ক্যারট সোনা দেওয়া হয়। ২২ ক্যারট সোনা মানে ৯১.৬% শতাংশ সোনা।

২। BIS চিহ্ন দেখে সোনা কিনুন – সাধারণত, সোনা কেনার আগে হলমার্ক দেখেই মানুষ কেনেন। এটাই নিয়ম খাঁটি সোনা চেনার ক্ষেত্রে। কিন্তু এছাড়াও BIS চিহ্ন দেখে সোনা কিনুন। তাতে আপনি নিশ্চিত থাকবেন যে, আপনার সোনা সত্যিই খাঁটি।

৩। ফ্লুরোসেন্স মেশিনে এক্স রে করিয়ে নিন। যদিও এই পদ্ধতিতে সোনা যাচাই করে নেওয়াটা একটু কঠিন। কারণ সব জায়গাতে সচরাচর এমন সূযোগ আপনি নাও পেতে পারেন। তবুও একবার চেষ্টা করে নেবেন, যাতে এই পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে আপনি আপনার সোনাকে যাচাই করে নিতে পারেন।

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

আসামি রুবির ভিডিও আমলে নিয়ে পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ

Untitled-1 copy

চলচ্চিত্র অভিনেতা সালমান শাহ হত্যা মামলায় আসামি রাবেয়া সুলতানা রুবির বক্তব্যসহ ভিডিওটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

 

 

 

আজ সোমবার সালমান শাহ হত্যা মামলার প্রধান আইনজীবী ফারুখ আহম্মেদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার মহানগর হাকিম মাহমুদা আক্তার এ নির্দেশ দেন।

আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মোহাম্মদ আনিস এনটিভি অনলাইনকে জানান, আজ আদালতে সালমান শাহের হত্যা মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী তিনটি আবেদন করেন। সে আবেদনগুলো হলো- সালমান শাহের হত্যা মামলার আসামি রুবির ভিডিওটি প্রমাণ হিসেবে গ্রহণ করা, সালমান হত্যার অন্যতম আসামি রিজভী আহমেদকে পুনরায় গ্রেপ্তার করতে পরোয়ানা জারি করা এবং সালমান হত্যা মামলাটি দ্রুত শেষ করার আবেদন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক বাদীপক্ষের প্রথম দাবিটি গ্রহণ করে পিবিআইকে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। বাকি দুটি আদেশ না দিয়ে আগামী ২০ নভেম্বর প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন নির্ধারণ করেছেন।

 

 

এর আগে সালমান শাহ্ হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি রাবেয়া সুলতানা রুবি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে আসেন। তাতে তিনি বলেন, সালমান শাহ ওরফে ইমন আত্মহত্যা করেননি, তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। এতে তিনি নিজে যুক্ত না থাকলেও তাঁর স্বামী জ্যানলিন চ্যান, ছোট ভাই রুমী, সালমান শাহর স্ত্রী সামিরাসহ বেশ কয়েকজনের নাম উল্লেখ করেন।

এমনকি বিষয়টি জানার কারণে তাঁর নিজের জীবনও এখন হুমকির মুখে বলে সেখানে উল্লেখ করেন রুবি। বলেন, তিনি বর্তমানে পালিয়ে রয়েছেন।

 

 

এই ভিডিও প্রকাশের পর তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে বা ভাইরাল হয়ে যায়। সালমান শাহর ভক্তরা ভিডিওটি শেয়ার করে হত্যার ঘটনার সুষ্ঠু বিচারও দাবি করছেন।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর জনপ্রিয় চিত্রনায়ক চৌধুরী মোহাম্মদ শাহরিয়ার ইমন ওরফে সালমান শাহ নিহত হন। সে সময় তাঁর বাবা প্রয়াত কমরউদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী একটি অপমৃত্যুর মামলা করেছিলেন।

১৯৯৭ সালের ২৪ জুলাই সালমানের বাবা তাঁর ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে এমন অভিযোগ এনে মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে একটি অভিযোগ করেন। ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার সিএমএম আদালত অপমৃত্যুর মামলার সঙ্গে হত্যার অভিযোগটি একসঙ্গে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) নির্দেশ দেন।

পরবর্তী সময়ে একই বছরের ৩ নভেম্বর সিআইডি ঘটনাটি পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করে ঢাকার সিএমএম আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে।

ওই চূড়ান্ত প্রতিবেদনে সালমান শাহর মৃত্যুকে অপমৃত্যু হিসেবে উল্লেখ করে সিআইডি। একই বছরের ২৫ নভেম্বর ঢাকার সিএমএম আদালত সিআইডি পুলিশের দাখিল করা চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণ করেন।

সিআইডির দাখিল করা প্রতিবেদনে সালমানের বাবা সন্তুষ্ট না হয়ে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে একটি রিভিশন মামলা করেন।

ওই রিভিশন মামলার ওপর শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ ২০০৩ সালের ১৯ মে মামলাটিকে ফের বিচার বিভাগীয় তদন্তের জন্য নির্দেশ দেন। এরপর প্রায় ১২ বছর ধরে মামলাটি বিচার বিভাগীয় তদন্তে ছিল।

সর্বশেষ ২০১৪ সালের ৩ আগস্ট সি এম এম বিকাশ কুমার সাহার কাছে মহানগর হাকিম ইমদাদুল হক বিচার বিভাগীয় তদন্ত শেষে প্রতিবেদন দাখিল করেন। ওই প্রতিবেদনেও সালমান শাহের মৃত্যুকে অপমৃত্যু হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

 

 

 

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

এবার জুয়েলকে বিয়ে করার কারন জানালেন চিত্রনায়িকা ময়ূরী !

Untitled-1 copy

অশ্লীলতার যুগে ঢাকাই চলচ্চিত্র দাপিয়ে বেড়িয়েছেন চিত্রনায়িকা ময়ূরী। কিন্তু হঠাৎ করেই চলচ্চিত্র থেকে দূরে সরে যান তিনি। বছর কয়েক আগে বিয়ে করে সংসারী হওয়ার খবরও শোনায়। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত প্রথম স্বামীর মৃত্যুর পর ফের বিয়ে করে আলোচনায় তিনি। তবে গুঞ্জন আছে, এটি তার দ্বিতীয় বিয়ে নয় বরং তৃতীয় বিয়ে!

 

 

 

এমন খবরকে গুঞ্জন বলে উড়িয়ে দিলেন চিত্রনায়িকা ময়ূরী। উল্টো তার অভিযোগ, সংবাদ মাধ্যমগুলো তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তারসঙ্গে কোনো কথা না বলেই মনগড়া খবর ছাপছে। তিনি এরআগে একটি বিয়েই করেছেন বলে জানালেন।

সম্প্রতি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী ও মাদরাসার শিক্ষক শফিক জুয়েলকে বিয়ে করে আলোচনার তুঙ্গে চিত্রনায়িকা ময়ূরী। এখন বিয়ের খবরটি আলোচিত হলেও ময়ূরী জানালেন, তারা বিয়েটা করেছেন গেল জুন মাসে। এবং তারা প্রেম করেই দুই পরিবারের ইচ্ছাতেই বিয়েটা করেছেন।

 

 

কিন্তু অসমবয়সী জুয়েলকে কেনো বিয়ে করলেন এমন প্রশ্নে ময়ূরী বলেন, জীবনে অনেক ছেলেই আমাকে বিয়ে করতে চেয়েছে। কিন্তু সবার দৃষ্টি লোভ ছিলো। আমার তো বদনাম আর বদনাম। কিন্তু জুয়েলের মতো এরকম ইয়াং একটি ছেলে, স্টুডেন্ট, নিজের স্বাভাবিক চাওয়াকে জলাঞ্জলি দিয়ে আমাকে বিয়ে করতে চাইলো। যে ছেলেটা মা, বাবা, ভাই, গ্রামের মানুষ, ভার্সিটির সবাই, সমাজের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করে নিজেকে কোরবানি দিয়ে আমাকে বিয়ে করতে চায়। তাকে কিভাবে কষ্ট দেই।

 

 

তাছাড়া জুয়েল ধার্মিক মানুষ। তাকে বিয়ে করার এটাও একটা কারণ বলে জানালেন ময়ূরী। শুধু তাই না জুয়েলের সঙ্গে এরইমধ্যে তাবলীগেও গিয়েছেন তিনি। সামনে চল্লিশ দিনের তাবলীগে যাওয়ারও ইচ্ছা পোষণ করেনছেন ময়ূরী।

 

 

 

অন্যদিকে তার বিয়ে নিয়ে যারা গুঞ্জন তৈরি করছে, ভুল সংবাদ ছাপছে তাদের উদ্দেশ্যে ময়ূরী বলেন, এটি আমার দ্বিতীয় ও জীবনের শেষ বিয়ে। তৃতীয় বিয়ের গুজব ঠিক নয়। আর আমি সাংবাদিক ভাইদের প্রতি অনুরোধ করি, যে সময়টার ময়ূরী আমি হতে চাই না, সেই অতীত সময়ের ছবি দিয়ে যেন সংবাদ প্রকাশ না করা হয়। আমিও মানুষ। আমার সংসার আছে, সন্তান আছে, আমার ব্যক্তিগত জীবনের প্রাইভেসি প্রতি দয়া করে শ্রদ্ধা পোষণ করুন। অতীতের ময়ূরীকে দিয়ে আমার বর্তমান জীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করবেন না

 

 

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) দুনিয়ার সর্বকালের সেরা মানব, টুইট করলেন রানী মুখার্জি । বিস্তারিত পড়লে অবাক হবেন

Untitled-1 copy

জন্ম মার্চ ২১, ১৯৭৮), একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। বলিউডে কর্মজীবনের মাধ্যমে, তিনি ভারতের সবচেয়ে উচ্চ-স্তরের ব্যক্তিক্তে পরিণত হয়েছেন। তিনি সাতটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার সহ বিভিন্ন পুরস্কার লাভ করেছেন।

মুখার্জি-সম্রাট পরিবারে জন্মগ্রহণ করলেও, যেখানে তার বাবা এবং আত্মীয়রা ভারতীয় চলচ্চিত্র শিল্পের সদস্য ছিলেন; সেখানে তিনি জীবিকা হিসেবে চলচ্চিত্রকে বেছে নেয়ার বিষয়ে উচ্চাভিলাষী ছিলেন না। যদিও, ছেলেবেলায়ই তিনি বাবার পরিচালিত বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র বিয়ের ফুল (১৯৯৬) চলচ্চিত্রে সহ-চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে এবং পরবর্তীতে তার মায়ের সনির্বন্ধ অনুরোধে রাজা কি আয়েগি বারাত (১৯৯৭) সামাজিক নাট্য চলচ্চিত্রে মূখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেন।

এরপর নিয়মিত হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন কুছ কুছ হোতা হ্যায় (১৯৯৮) চলচ্চিত্রে শাহরুখ খানের বিপরীতে একটি সহযোগী চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। তার কর্মজীবনের এই প্রাথমিক সাফল্যের পর, পরবর্তী তিন বছরের জন্য তার চলচ্চিত্র বক্স অফিসে দুর্বল অবস্থানে ছিল।

যশ রাজ ফিল্মসের সাথিয়া (২০০২) নাট্য চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর তার কর্মজীবনের সাফল্য আসে।
তিনি তাঁর পিতা রাম মুখোপাধ্যায় একজন অবসরপ্রাপ্ত পরিচালক। তাঁর মা কৃষ্ণা চলচ্চিত্রে গান গাইতেন। তাঁর ভাই রাজা মুখোপাধ্যায় একজন চিত্র প্রযোজক। তাঁর মাসি হলেন প্রখ্যাত চিত্রনায়িকা দেবশ্রী রায়। বলিউড তারকা অভিনেত্রী কাজল তাঁর সম্পর্কিত বোন।তিনি বিখ্যাত পরিচালক প্রযোজক যশ চোপড়া এর বড় ছেলে পরিচালক ও প্রযোজক আদিত্য চোপড়াকে বিয়ে করেন।

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) দুনিয়ার সর্বকালের সেরা মানব, টুইট করলেন রানী মুখার্জি

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) দুনিয়ার সর্বকালের সেরা মানব বলে টুইট করলেন বলিউড নায়িকা রানী মুখার্জি!
যা নিয়ে অনলাইন মাধ্যমে শেয়ারিং এর ধুম পড়েছে!

টুইটটির জন্য মুসলিমরা অবশ্যক রানীকে অনেক ধন্যবাদ জানাচ্ছেন।

 

 

 

 

 

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

পাকিস্তানি প্রেমিকা মাহিরাসহ সিগারেট হাতে নিউইয়র্কের রাস্তায় রণবীর !

Untitled-1 copy

এই তো মাত্র কিছুদিন আগেই ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে রণবীর কাপুরের বিচ্ছেদের খবরে শোরগোল পড়েছিলবলিউডে কিন্তু ক্যাটরিনার সঙ্গে বিচ্ছেদের পর রীতিমত পাকিস্তানি অভিনেত্রী মাহিরা খানের প্রেমে বেশকিছুদিন থেকে হাবুডুবু খাচ্ছেন রণবীর কাপুর বলিউড পাড়ায় খবরটি অনেকদিন থেকেই শোনা যাচ্ছিল

 

 

 

 

সম্প্রতি এই দুই তারকাকে আবার একসাথে দেখা গেছে নিউইয়র্কের রাস্তায়। তাও আবার দু’জনে একসাথে সিগারেট টানা অবস্থায়। এ সময় রণবীরের পড়নে ছিল টি-শার্ট আড় মাহিরা পড়েছিলেন সাদা জামা।

পাপারাজ্জিদের হাত থেকে বুঝি রক্ষা নেই তারকাদের। যেখানেই যান না কেন,ক্যামেরার চোখ তাদের পিছু ছাড়বে না যেন! তাহলে রণবীর-মাহিরার প্রেমের ব্যাপারটি শেষমেশ গুজব থেকে সত্যি হচ্ছে?

 

 

 

 

 

এ নিয়ে যোগ-বিয়োগ শুরু হয়ে গেছে এরই মধ্যে। সম্প্রতি শাহরুখ খানের ‘রইস’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বলিউডে পা রেখেছেন মাহিরা খান। রণবীরের সাথে তার পরিচয় দুবাই-এর একটি ইভেন্টে

 

 

 

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

সালমান হত্যার প্রমান গোয়েন্দার হাতে !!!দেখুন কে কে খুন করেছে ?(ভিডিওসহ)

Untitled-1 copy

প্রয়াত নায়ক সালমান শাহ’র মৃত্যু বার্ষিকী আজ। সারাদেশে বিক্ষোভ মিছিল ও কর্মসূচির মধ্যদিয়ে দিনটি পালন করবেন বলে জানিয়েছেন সালমান শাহ’র ‘মা’ নীলা চৌধুরী

 

 

 

 

 

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রহস্যজনকভাবে নিহত হন সালমান শাহ। অভিযোগ উঠে যে, তাকে হত্যা করা হয়েছে।

মৃত্যুর ২২ বছর পর বাংলাদেশের সিনেমার আধুনিক যুগের সেরা নায়ক সালমান শাহ হত্যা মামলার সুরাহা আজ পর্যন্ত হয়নি।

কয়েকদিন আগে আমেরিকা প্রবাসী এক নারী তার ভিডিও বার্তায় সালমানকে হত্যা করা হয়েছিল বলে দাবি করেন। ভিডিও বার্তা প্রচারকারী রাবেয়া সুলতানা রুবি সালমান মৃত্যুর পর করা হত্যা মামলার একজন আসামি।

 

 

 

 

 

 

তিনি দাবি করেন, সালমান শাহকে হত্যায় জড়িত ছিলেন তার স্ত্রী সামিরা ও তার পরিবার, রুবির চীনা স্বামী চ্যাং লিং চ্যাং। উনি বাংলাদেশে জন চ্যাং নামে পরিচিত ছিল এবং রুবির ভাই রুমি ও চীনা কমিউনিটির কয়েকজন সদস্য।

আর এ দাবির পর নতুন করে আলোচনায় চলে এসেছে সালমান হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি। সালমানের পরিবারের দাবি নতুন করে রুবিকে জিজ্ঞাসাবাদ করার মাধ্যমে হত্যাকাণ্ডের তদন্ত দ্রুত শুরু করা হোক। আর সামিরার পরিবারের দাবি একটি মীমাংসিত বিষয়কে উদ্দেশ্যমূলকভাবে সামনে নিয়ে আসা হয়েছে।

 

 

 

 

 

সালমানের মৃত্যুর দিন ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রাতে কি ঘটেছিল, তার অনুসন্ধানের চেষ্টা করেছে বিবিসি বাংলা। প্রতিবেদনে যা বলা হয়েছে তা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল-

 

 

 

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর দিনটি ছিল শুক্রবার। সেদিন সকাল সাতটায় বাবা কমর উদ্দিন চৌধুরী ছেলে শাহরিয়ার চৌধুরী ইমনের সঙ্গে দেখা করতে ইস্কাটনের বাসায় যান। কিন্তু ছেলের দেখা না পেয়ে তিনি ফিরে আসেন।

এই শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন ঢাকার তৎকালীন সিনেমা জগতের সুপারস্টার সালমান শাহ।

সেদিনের ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে সালমান শাহ’র মা নীলা চৌধুরী বলেন, বাসার নিচে দারোয়ান সালমান শাহ’র বাবাকে তার ছেলের বাসায় যেতে দিচ্ছিল না ।

 

 

 

নীলা চৌধুরীর বর্ণনা ছিল এ রকম, “বলেছে স্যার এখনতো উপরে যেতে পারবেন না। কিছু প্রবলেম আছে। আগে ম্যাডামকে (সালমান শাহ’র স্ত্রীকে) জিজ্ঞেস করতে হবে। এক পর্যায়ে উনি (সালমান শাহ’র বাবা) জোর করে উপরে গেছেন। কলিং বেল দেবার পর দরজা খুললো সামিরা (সালমান শাহ’র স্ত্রী)।”

“উনি (সালমান শাহ’র বাবা ) সামিরাকে বললেন ইমনের (সালমান শাহ’র ডাক নাম) সঙ্গে কাজ আছে, ইনকাম ট্যাক্সের সই করাতে হবে। ওকে ডাকো। তখন সামিরা বললো, আব্বা ওতো ঘুমে। তখন উনি বললেন, ঠিক আছে আমি বেডরুমে গিয়ে সই করিয়ে আনি। কিন্তু যেতে দেয় নাই। আমার হাজব্যান্ড প্রায় ঘণ্টা দেড়েক বসে ছিল ওখানে।”

 

 

 

বেলা এগারোটার দিকে একটি ফোন আসে সালমান শাহ’র মা নীলা চৌধুরীর বাসায়।

ওই টেলিফোনে বলা হলো, সালমান শাহকে দেখতে হলে তখনই যেতে হবে।

যাওয়ার পর সালমানের বেডরুমের পরিবেশ বর্ণনা করতে গিয়ে সালমানের মা নীলা চৌধুরী বলেন, টেলিফোন পেয়েই সালমান শাহ’র বাসার দিকে রওনা হই। তবে সালমানের ইস্কাটনের বাসায় গিয়ে ছেলে সালমান শাহকে বিছানার ওপর দেখতে পাই।

“খাটের মধ্যে যেদিকে মাথা দেবার কথা সেদিকে পা। আর যেদিকে পা দেবার কথা সেদিকে মাথা। পাশেই সামিরার (সালমান শাহ’র স্ত্রী) এক আত্মীয়ের একটি পার্লার ছিল। সে পার্লারের কিছু মেয়ে ইমনের হাতে-পায়ে সর্ষের তেল দিচ্ছে। আমি তো ভাবছি ফিট হয়ে গেছে।”

“আমি দেখলাম আমার ছেলের হাতে পায়ের নখগুলো নীল। তখন আমি আমার হাজব্যান্ডকে বলেছি, আমার ছেলে তো মরে যাচ্ছে,” বিবিসি বাংলাকে বলছিলেন নীলা চৌধুরী।

 

 

 

 

ইস্কাটনের বাসা থেকে সালমান শাহকে হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানকার ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করে। এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে বলা হয় সালমান শাহ আত্মহত্যা করেছে।

তবে সালমানের পরিবার দাবি করে- সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে।

নীলা চৌধুরীর অভিযোগ ছিল তারা হত্যা মামলা করতে গেলে পুলিশ সেটিকে অপমৃত্যুর মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে।

পুলিশ বলেছিল, অপমৃত্যুর মামলা তদন্তের সময় যদি বেরিয়ে আসে যে এটি হত্যাকাণ্ড, তাহলে সেটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে হত্যা মামলায় মোড় নেবে।

 

 

 

 

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে অন্যতম শ্রেষ্ঠ নায়কের আকস্মিক মৃত্যুতে স্তম্ভিত হয়ে যায় পুরো দেশ।

সে সময় সারা দেশজুড়ে সালমানের অসংখ্য ভক্ত তার মৃত্যু মেনে নিতে না পারায় বেশ কয়েকজন তরুণী আত্মহত্যা করেন বলেও খবর আসে পত্রিকায়।

সালমানের মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে না পারায় তার ভক্তদের মাঝে তৈরি হয় নানা প্রশ্নের।

সালমান শাহ’র মৃত্যুকে ঘিরে যখন একের পর এক প্রশ্ন উঠতে থাকে, তখন পরিবারের দাবির মুখে দ্বিতীয়বারের মতো ময়নাতদন্ত করা হয়। মৃত্যুর আটদিন পরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে তিন সদস্য বিশিষ্ট মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

তিনি বিবিসি বাংলাকে বলছিলেন, “লাশটা আমি দেখেছি মরচুয়েরিতে। আমার কাছে মনে হয়েছে যেন সদ্য সে মারা গেছে। এ রকম থাকলে তার মৃত্যুর কারণ যথাযথভাবে নির্ণয় করা যায়। আত্মহত্যার প্রত্যেকটা সাইন (চিহ্ন) সেখানে অত্যন্ত নিবিড়ভাবে ছিল। তার শরীরে আঘাতের কোনো নিশানা ছিল না।”

দ্বিতীয় ময়নাতদন্তে আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করা হলে মামলার কাজ সেখানেই থেমে যায়।

সালমান শাহ’র পারিবারিক বন্ধু চলচ্চিত্র পরিচালক শাহ আলম কিরণ বলছিলেন, শেষের দিকে অনেক মানসিক চাপে ছিলেন সালমান শাহ। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েন এবং প্রযোজকদের সঙ্গে বোঝাপড়ার ঘাটতি তৈরি হয়েছিল।

 

 

 

 

সালমান শাহ’র মৃত্যুর পরে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অভাবনীয় ক্ষতির মুখে পড়ে।

এই প্রয়াত নায়কের মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে নীলা চৌধুরী বিডি২৪লাইভকে জানান, ‘আজ আমার ছেলে সালমান শাহ’র শাহাদাৎ বার্ষিকী। এই দিনে আমার ছেলেকে খুন করা হয়েছে। যার বিচার আমি আজও পাইনি। সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত সিলেট শাহজালাল মাজারে সালমান ভক্তদের নিয়ে দোয়া মাহফিল হবে। সেখান থেকে বের হবে ১২.৩০ মিনিটে সালমান শাহ কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে। এরপর কোর্ট পয়েন্টে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হবে এবং সিলেট কোর্ট পয়েন্টে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বিকালে সালমানের জন্মস্থান (সালমান ভবনে) মিলাদ মাহফিলের আয়োজনের মধ্যদিয়ে কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করা হবে। সেই সাথে সারাদেশে একই ভাবে পালিত হবে এই দিনটি।’

 

 

উল্লেখ্য, সালমান শাহ (জন্ম: ১৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৭১ – মৃত্যু: ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬), বাংলাদেশের ১৯৯০-এর দশকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ নায়ক। তাঁর প্রকৃত নাম শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন। টেলিভিশন নাটক দিয়ে তার অভিনয় জীবন শুরু হলেও পরে তিনি চলচ্চিত্রে একজন জননন্দিত শিল্পী হয়ে উঠেন। ১৯৯৩ সালে তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত কেয়ামত থেকে কেয়ামত মুক্তি পায়।

একই ছবিতে নায়িকা মৌসুমী ও গায়ক আগুনের অভিষেক হয়। জনপ্রিয় এই নায়ক নব্বইয়ের দশকের বাংলাদেশে সাড়া জাগানো অনেক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনি সর্বমোট ২৭টি চলচ্চিত্র অভিনয় করেন এবং সবকয়টিই ছিল ব্যবসাসফল। তিনি ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর অকালে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যুবরণ করেন। অভিযোগ উঠে যে, তাকে হত্যা করা হয়; কিন্তু তার সিলিং ফ্যানে ফাঁসিতে হত্যাকান্ডের কোনো আইনী সুরাহা শেষ পর্যন্ত হয়নি।

 

 

 

 

read more
অভিনয় শিল্পীদের তথ্য

নতুন বিয়ে নিয়ে মুখ খুলেন ময়ূরী – কি বললেন – পড়ুন বিস্তারিত…

Untitled-1 copy

প্রথম স্বামী মারা যাওয়ার প্রায় দুই বছর পর দ্বিতীয়বার সংসার সাজিয়েছেন ঢাকাই ছবির একসময়ের আলোচিত নায়িকা ময়ূরী। এ বছরের আগস্ট মাসের মাঝামাঝি সময়ে তারা বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন। তার এ স্বামীর নাম শফিক জুয়েল।

 

 

 

 

 

 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে দর্শন বিষয়ে মাস্টার্সে পড়ছেন। পরিচয়ের দেড় মাসের মধ্যেই জুয়েলকে বিয়ে করেন ময়ূরী। বর্তমানে টঙ্গীতে নতুন স্বামীর সঙ্গে সুখেই দাম্পত্য জীবন কাটাচ্ছেন তিনি। সঙ্গে রয়েছে ময়ূরীর আগের পক্ষের একমাত্র মেয়ে অ্যাঞ্জেল।

নতুন বিয়ে প্রসঙ্গে গতকাল মুখ খুলেছেন ময়ূরী। গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, বিভিন্ন অনলাইন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে এটি আমার তৃতীয় বিয়ে। আসলে তা সত্য নয়। প্রথম স্বামী মারা যাওয়ার পর আর কাউকে আমি বিয়ে করিনি। যে শ্রাবণ শাহের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছে বলে বলা হচ্ছে তা একেবারেই ভিত্তিহীন। জুয়েলই আমার দ্বিতীয় এবং শেষ স্বামী। দোয়া করবেন তার স্ত্রী থাকাকালীনই যেন আমার মৃত্যু হয়।

 

 

 

আরেকটি কথা, জুয়েলই আমাকে ধর্মের পথে আসতে সহায়তা করেছে। তার উৎসাহ, অনুপ্রেরণায় আমি এখন নিয়মিত ধর্মকর্ম করি। তাবলীগেও গিয়েছি। বলতে পারেন আমি এখন পুরোদস্তুর পর্দার ভেতর চলাফেরা করি। প্রসঙ্গত, ময়ূরীর প্রথম স্বামী রেজাউল করিম খান মিলন ছিলেন টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান। ২০১৫ সালের ২৭শে সেপ্টেম্বর তিনি মারা যান। ময়ূরী সিনেমায় আত্মপ্রকাশ ঘটান ১৯৯৮ সালে ‘মৃত্যুর মুখে’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। তার অভিনীত তিন শতাধিক ছবি মুক্তি পেয়েছে।

 

 

 

 

উল্লেখ্য, ঢাকাই ছবির সোনালি যুগের অবসানের পর নব্বই দশকের শেষ দিকে চলচ্চিত্রে অশ্লীল ছবির আগ্রাসন শুরু হয়। অশ্লীলতার যাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে চলচ্চিত্র প্রেমীরা হলবিমুখ হতে শুরু করেন। এ সময় ঢালিউডে ঝড় তোলেন সুঠাম দেহের অধিকারী এক নায়িকা, যার নাম ময়ূরী।

 

 

অশ্লীলতার অভিযোগে অভিযুক্ত নায়িকাদের শীর্ষে মুনমুনের পরেই ময়ূরীর নাম পাওয়া যায়। ২০০৫ সালের পর চলচ্চিত্র সুস্থ ধারায় ফিরলে অনেকটাই অন্তরালে চলে যান তিনি। চলচ্চিত্রের জুনিয়র শিল্পী সেতুর মেয়ে ময়ূরী। তাকে চলচ্চিত্রে নিয়ে আসেন মাহমুদ নামে একজন প্রযোজক।

 

 

 

 

 

 

read more
1 2 3 13
Page 1 of 13