close

দেশ

খবরদেশ

ঢাকা-কক্সবাজার হানিমুন বাস, এখন হানিমুন শুরু হবে যাত্রাপথেই (ভিডিও সংযুক্ত)

Capture

 

 

 

 

ঢাকা-কক্সবাজার হানিমুন বাস, এখন হানিমুন শুরু হবে যাত্রাপথেই

হানিমুন নব দম্পতিদের অন্যতম কাঙ্খিত বিষয়। বিয়ের পরপরই সবাই হানিমুনে যাওয়ার জন্য উদগ্রীব থাকে। হানিমুনের জন্য মানুষ খুজে নেই প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য এর লীলাভুমি কে। হয়তো কোন সমুদ্র সৈকতে কিংবা কোন সুন্দর প্রাকৃতির জায়গাকে।

 

 

বাংলাদেশের হানিমুন করার জন্য যেকোন দম্পত্তির প্রথম পছন্দ কক্সবাজার। বেশিরভাগ দম্পত্তি তাদের হানিমুনে কক্সবাজারেই যায়। কারন পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রাকৃতিক বিচ কক্সবাজার সৌন্দর্যর অপার লীলাভুমি। এর রুপের টানে দেশ বিদেশ থেকে হাজার হাজার মানুষ প্রতিনিয়ত ছুটে আছে।

 

 

 

 

 

ঢাকা-কক্সবাজার রুটে চলাচল করে বাংলাদেশের অন্যতম লাক্সিরিয়ারস বস বাসগুলো। গ্রীন লাইন, সোহাগ পরিবহন, সাকুরা সব বড় বড় পরিবহনের সবথেকে সুন্দর গাড়িগুলো চলাচল করে কক্সবাজার-ঢাকা রুটে। এসব গাড়িগুলোর ভিতরের দৃশ্য দেখলে আপনি অবাক হতে বাধ্য। কারন এসব বাসে আপনি শুধু বসে নয় শুয়েও যেতে পারবেন। চলুন আজকে এক নজরে দেখে নেই এইসব বাসের ভিতরের অপরুর সৌন্দর্যগুলো।

ভিডিও দেখুনঃ

 

 

 

 

read more
খবরদেশ

আমাকে সাহায্য করুন : প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ নীলা চৌধুরীর!!! দেখুন বিস্তারিত…

Capture

আমাকে সাহায্য করুন : প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ নীলা চৌধুরীর!!! দেখুন বিস্তারিত…

 

 

 

জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহ হত্যা রহস্য উন্মোচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা চেয়েছেন সালমান শাহের মা নীলা চৌধুরী। সোমবার বিকেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সহযোগিতার অনুরোধ জানান।

 

ফেসবুকে নীলা চৌধুরী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, একজন সর্বশান্ত জননী আপনার দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। একবার ভিডিওটি দেখুন (সুলতানা রুবির ভিডিওবার্তা)। ইমনের (সালমান শাহ) বিচার হলেও আমি আর কোনোদিন ইমনকে পাব না।

 

কিন্তু আপনার সরকার কলঙ্কমুক্ত হবে। আল্লাহ আমাকে সাহায্য করেছেন, আপনিও আমাকে সাহায্য করুন সত্য উদঘাটনে। আমি কৃতজ্ঞ থাকব।’

 

এর আগে এক পোস্টে সালমান শাহের ভক্ত, অনুরাগী ও দেশবাসীর কাছে অনুরোধ জানিয়ে তিনি ফেসবুকে বলেন, ‘প্রিয় দেশবাসী, আমাকে সাহায্য করুন। দেখুন, রুবি সুলতানার স্বীকারোক্তি। কিভাবে সালমানকে হত্যা করা হয়েছে।

 

যেভাবে পারেন এফবিআইকে জানান, বাংলাদেশের সকল চ্যানেলকে অনুরোধ করছি রুবির স্বীকারোক্তিটা চালিয়ে দেন। প্রিয়জন খেয়াল রাখবেন এই নিউজের পর অনেকে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার চেষ্টা করবে। শান্তভাবে কাজ করবে।’

 

সালমান শাহের মৃত্যু রহস্য নিয়ে নতুন করে জটলা বাঁধে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী রাবেয়া সুলতানা রুবির প্রকাশ করা এক ভিডিওবার্তায়। সোমবার সকাল থেকেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে পড়ে। ভিডিও বার্তায় রুবি দাবি করেন, ‘সালমান শাহ আত্মহত্যা করেননি, তাকে খুন করা হয়েছে। এই খুনে জড়িত তার স্বামী জন চ্যান ও সালমান শাহের স্ত্রী সামিরার পরিবার।’

 

 

read more
খবরদেশ

১২টি ফ্লাইট বাতিল , হজ অনিশ্চয়তায় ৪০ হাজার মানুষ ! বিস্তারিত…

Capture

১২টি ফ্লাইট বাতিল , হজ অনিশ্চয়তায় ৪০ হাজার মানুষ ! বিস্তারিত…

 

ভিসা জটিলতা না কাটলে ৪০ হাজার হজযাত্রীর হজ অনিশ্চয়তায় পড়বে। এছাড়া যাত্রীর অভাবে এ পর্যন্ত ১২টি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে হজ ক্যাম্পে বিমান শ্রমিকলীগের হজযাত্রীদের বিশেষ সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন শেষে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিমান বাংলাদেশ হজযাত্রী পরিবহনে শতভাগ প্রস্তুত। কিন্তু ভিসা না পাওয়ায় হজযাত্রীদের পরিবহন করতে পারছে না। সবচেয়ে বড় সমস্যা হবে ফ্লাইট বরাদ্দ নিয়ে।

 

মন্ত্রী বলেন, বাতিল হওয়া ফ্লাইটগুলোর জন্য বিমান আবেদন করেছে। সেগুলো পেলে সমস্যা হবে না। আর না পেলে ৪০ হাজার হজযাত্রীর হজ অনিশ্চিত হয়ে পড়বে।

 

এদিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ বলেছেন, ভিসা জটিলতায় যাত্রী সংকটের কারণে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদি এয়ারলাইন্স ১২টি হজফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এরইমধ্যে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ৯টি বাকি ৩টি সৌদি এয়ারলাইন্সের।

এর মধ্যে মঙ্গলবারই ৪টি হজফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এগুলো হলো- ভোর ৪টা ৫৫ মিনিটের (বিজি-৩০৩১), সকাল ৮টা ৫৫মিনিটের (বিজি-৫০৩১), রাত ১১টা ৪৫মিনিটের (বিজি-৩০৩৩), রাত ১২টা ৫৫মিনিটের (বিজি- ৭০৩১)।

 

এর আগে গেলো সোমবার দুপুর দেড়টার (বিজি- ৩০২৯) হজফ্লাইট বাতিল করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। এছাড়া গেলো রোববারও বিমানের একটি হজফ্লাইট ও শনিবার বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দুটি ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করা হয়।

ভিসা জটিলতা না কাটলে ৪০ হাজার হজযাত্রীর হজ অনিশ্চয়তায় পড়বে। এছাড়া যাত্রীর অভাবে এ পর্যন্ত ১২টি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে হজ ক্যাম্পে বিমান শ্রমিকলীগের হজযাত্রীদের বিশেষ সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন শেষে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিমান বাংলাদেশ হজযাত্রী পরিবহনে শতভাগ প্রস্তুত। কিন্তু ভিসা না পাওয়ায় হজযাত্রীদের পরিবহন করতে পারছে না। সবচেয়ে বড় সমস্যা হবে ফ্লাইট বরাদ্দ নিয়ে।

 

মন্ত্রী বলেন, বাতিল হওয়া ফ্লাইটগুলোর জন্য বিমান আবেদন করেছে। সেগুলো পেলে সমস্যা হবে না। আর না পেলে ৪০ হাজার হজযাত্রীর হজ অনিশ্চিত হয়ে পড়বে।

 

এদিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ বলেছেন, ভিসা জটিলতায় যাত্রী সংকটের কারণে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদি এয়ারলাইন্স ১২টি হজফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এরইমধ্যে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ৯টি বাকি ৩টি সৌদি এয়ারলাইন্সের।

এর মধ্যে মঙ্গলবারই ৪টি হজফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এগুলো হলো- ভোর ৪টা ৫৫ মিনিটের (বিজি-৩০৩১), সকাল ৮টা ৫৫মিনিটের (বিজি-৫০৩১), রাত ১১টা ৪৫মিনিটের (বিজি-৩০৩৩), রাত ১২টা ৫৫মিনিটের (বিজি- ৭০৩১)।

 

এর আগে গেলো সোমবার দুপুর দেড়টার (বিজি- ৩০২৯) হজফ্লাইট বাতিল করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। এছাড়া গেলো রোববারও বিমানের একটি হজফ্লাইট ও শনিবার বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের দুটি ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করা হয়।

read more
খবরদেশ

পদ্মা সেতুর গভীরে যা দেখে ভয়ে কাজ বন্ধ করে দিল প্রকৌশলীরা !! (দেখুন ভিডিও সহ)

Capture copy

পদ্মা সেতুর গভীরে যা দেখে ভয়ে কাজ বন্ধ করে দিল প্রকৌশলীরা !! (দেখুন ভিডিও সহ)

ভারতের আসাম ও অরুণাচলের মধ্যে ঢোলা ও শাদিয়া এলাকার খরস্রোতা ধলা নদী, যা আর ৪ কিলোমিটার ভাটিতে এসে আরও দুইটি নদীর সঙ্গে মিশে হয়েছে ব্রহ্মপুত্র। সেই নদীর ওপর ২ হাজার ৫৬ কোটি ভারতীয় মুদ্রায় ৯ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু ও ২৮ কিলোমিটার অ্যাপ্রোচ রোড নির্মিত হয়েছে। বাংলাদেশের মুদ্রায় ধরলে এই টাকা ২ হাজার ২০০ কোটি টাকার বেশি হওয়ার কথা নয়।
শুক্রবার ভুপেন হাজারিকা সেতুটির উদ্বোধন করা হয়েছে। আসামে ব্রহ্মপুত্রের শাখা নদী লোহিতের ওপর নির্মিত ৯ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ দুই লেনের ঢোলা-সাদিয়া সেতু (আগের নাম) উদ্বোধন করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

আসামে চালু হওয়া দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে দীর্ঘতম এই সেতুর উদ্বোধনের পর এর খরচ ও নির্মাণ সময় নিয়ে বাংলাদেশের পদ্মা সেতুর তুলনা করে সামাজিক মাধ্যমে নানা কথা উঠেছে। অনেকেই বাংলাদেশের পদ্মাসেতুর খরচ ও সময়কে ভুপেন হাজারিকা সেতুর সঙ্গে তুলনা করতে চাইছেন। ভারতের এই সেতুর নির্মাণ ব্যয়ের কথা জানতে পেরে এদেশের পদ্মা সেতুর সংশ্লিষ্টরা বিষয়টি নিয়ে নানাভাবে জবাব দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

বলা হচ্ছে, বিশ্বের শক্তিশালী সেতুর তালিকায় প্রথম অবস্থানে বাংলাদেশের পদ্মাসেতু। দৈর্ঘ্যের দিক থেকে এর চেয়ে বড় সেতু আরও রয়েছে। সম্প্রতি ভারতে উদ্বোধন করা হয়েছে একটি সেতু যা ৯.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ। পদ্মাসেতু হচ্ছে ৬.১৫ কিলোমিটার। তবে বিশ্বের আর কোনও সেতু তৈরীতে পদ্মার মতো নদীর এতো তলদেশে গিয়ে গাঁথতে হয়নি পাইল, বসাতে হয়নি এত বড় পিলার। আর পদ্মার মতো স্রোতস্বীনী এমন নদীর ওপর সেতু বসেছে মাত্র একটি।

এ বিষয়ে কথা বলেছেন পদ্মাসেতু নির্মাণে নিয়োজিতরা। তারা জানাচ্ছেন শক্তি ও নির্মাণশৈলীর দিক থেকে পদ্মাসেতু কতটা অনন্য। বলছেন এর সঙ্গে অন্য কোনও সেতুর তুলনা চলে না।

পদ্মা সেতুর গভীরে যা দেখে ভয়ে কাজ বন্ধ করে দিল প্রকৌশলীরা !! ভিডিওটি দেখতে নিচের ভিডিওতে ক্লিক করুন

এদিকে তথ্যমতে, ভুপেন হাজারিকা সেতুর পাইল লোড মাত্র ৬০ টন। সেখানে পদ্মা সেতুর পাইল লোড ৮ হাজার ২০০ টন। ভারতের ওই সেতুর একেকটি পিলার ১২০ টনের। আর পদ্মা সেতুর একটি পিলার ৫০ হাজার টনের। সে হিসেবে ভারতের সেতুটির চেয়ে পদ্মাসেতু হতে চলেছে ১৩৩গুন বেশি শক্তিশালী।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পদ্মাসেতু তার অনন্য বৈশিষ্ট্যের জন্য বিশ্বের সব চেয়ে ব্যতিক্রমী সেতু হবে। কারণ খরস্রোতার দিক দিয়ে আমাজান নদীর পরই বিশ্বে বাংলাদেশের পদ্মানদীর অবস্থান, যার ওপর দিয়ে সেতু করা হচ্ছে। পদ্মা সেতুর মতো দ্বিতল (গাড়ি ও ট্রেন) সেতু পৃথিবীতে হাতেগোনা কয়েকটি আছে। আর দুই লেনের ভূপেন হাজারিকা সেতুর উদাহরণ পৃথিবীতে কয়েকশ পাওয়া যাবে।

নানা কারণে পদ্মাসেতু হতে যাচ্ছে অনন্য, বৈচিত্র্যময় এবং শ্রেষ্ঠত্বের। তার কিছু উল্লেখযোগ্য দিক রয়েছে। পানি প্রবাহ, সেতুর দৈর্ঘ্য, সেতু নির্মাণের বিভিন্ন উপকরণে এ স্থাপনা বিশ্বের অন্যান্য বড় সেতু/ব্রিজকে ছাড়িয়ে গেছে।

পদ্মানদীতে পাথরের স্তর মিলেছে ১০ কিলোমিটার গভীরে। বিশ্বের অন্যান্য নদী ও নদীর ওপর যেসব সেতু আছে সেগুলোর কোনোটিরই পাথরের স্তর এতো নিচে নয়। এ কারণে ৪০০ মিটার গভীরে পাইল নিয়ে যেতে হয়েছে। যা পৃথিবীর সেতু নির্মাণে বিরল ঘটনা। একেকটি পাইলের ওজন ৮ হাজার ২০০ টন। আর পাইল এতো গভীরে যাচ্ছে যে- ভেতরে এটি ৪০ তলা ভবনের সমান হবে।

পদ্মাসেতুর পাইল নদীর তলদেশে নিতে যে হ্যামার লাগবে সেটি বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী হাইড্রোলিক হ্যামার। পৃথিবীর কোথাও আর কোনো সেতুতে এমন শক্তিশালী হ্যামার ব্যবহৃত হয়নি। এই হ্যামারটি জার্মানি থেকে বিশেষ অর্ডারে তৈরি করে আনা।

পদ্মাসেতুর যে পাথর ব্যবহৃত হচ্ছে তার একটির ওজন এক টন। এ পাথর ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্য থেকে (পাকুর পাথর) আমদানি করা হয়েছে। মাত্র ১৫ টুকরো পাথরে ভরে যায় একটি বড় ট্রাক।

আর বিশ্বের সবচেয়ে বড় কারখানা বলা যায় পদ্মাসেতুর পাইল ও স্প্যান ফেব্রিকেশন ইয়ার্ড। যেখানে প্রস্তুত হচ্ছে সেতুর পাইল আর স্প্যান। এই ইয়ার্ডের আয়তন ৩০০ একর। এর একদিকে প্লেট ঢুকছে অন্যদিকে পাইল বের হচ্ছে।

পদ্মানদীর শুধু মাওয়া পয়েন্টে মাত্র ২০ সেকেন্ডে যে পানি প্রবাহিত হয় তা রাজধানী ঢাকার সারাদিনের যত পানি লাগে তার সমান। হিসাব মতে, পদ্মা নদীতে প্রতি সেকেন্ডে ১ লাখ ৪০ হাজার ঘন মিটার পানি প্রবাহ রয়েছে। পানি প্রবাহের দিক বিবেচনায় বিশ্বে আমাজান নদীর পরেই এই প্রমত্তা পদ্মা। পদ্মাসেতুর বিশেষজ্ঞ প্যানেলের প্রধান ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী প্রতিবেদককে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

পদ্মাসেতু বাস্তবায়ন করছে বাংলাদেশের সেতু বিভাগ। সেতু বিভাগ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অধীনে। সেই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মাত্র আড়াই বছরে সেখানে গিয়েছেন প্রায় পৌনে ৩০০ বার। সরবচ্ছ দায়িত্বপ্রাপ্তর পক্ষ থেকে এতটা নিখুঁত তদারকিও এক বিরল ঘটনা। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর এটাই সবচেয়ে বড় কোন প্রকল্প যা বাস্তবায়িত হচ্ছে। আর কোনো সেতু বা প্রকল্পের কাজে কোনো মন্ত্রীর এতো নজরদারি দেখা যায়নি। এখন পর্যন্ত যার ৪৩ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। ২০১৮ ডিসেম্বরে চালু হওয়ার কথা পদ্মা সেতু।

 

read more
জানা-অজানাদেশ

ভিসা ছাড়ায় যে ৫০ টি দেশে যেতে পারেন বাংলাদেশিরা..? জেনে নিন কোন কোন দেশে!!!

Bangladeshi-Passport-Bangladeshi-Visa-prothomkhabor

ভিসা ছাড়ায় যে ৫০ টি দেশে যেতে পারেন বাংলাদেশিরা..? জেনে নিন কোন কোন দেশে!!!

 

একজন বাংলাদেশি হিসেবে আপনি গর্ব করতেই পারেন। কারণ ভিসা ছাড়াই শুধু বাংলাদেশের পাসপোর্টের জোরে আপনি ৫০টি দেশ ভ্রমণ করতে পারবেন। আর্থিক খাতের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান আরটন ক্যাপিটাল প্রভাবশালী পাসপোর্টের তালিকা তৈরি করেছে, যেখানে বাংলাদেশের অবস্থান ৬৭তম।

অরটন ক্যাপিটালের নিয়ন্ত্রিত পাসপোর্ট ইনডেস্ক ডটঅর্গ ওয়েবসাইট সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীরা ৫০টি দেশে ভিসা ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারেন। এ দেশগুলোর কয়েকটিতে বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীদের কোনো ভিসার প্রয়োজনই হয় না। বাকি দেশগুলোর প্রায় সবগুলোর ক্ষেত্রেই সেখানে পৌঁছে ‘অন অ্যারাইভাল ভিসা’ করে নিতে হবে। আর, দু-একটি দেশের ক্ষেত্রে ভিন্ন ব্যবস্থা প্রযোজ্য।

 

 

Related image

পাসপোর্ট ইনডেক্স ডটঅর্গে বিভিন্ন দেশের পাসপোর্টের প্রভাব নিয়ে ৮০ পর্যন্ত তালিকা করা হয়েছে, যেখানে বাংলাদেশের অবস্থান ৬৭। কোনো দেশের পাসপোর্টধারী ভিসা ছাড়াই অন্য দেশের যাওয়ার সংখ্যার ভিত্তিতে এই তালিকা করা হয়েছে। বাংলাদেশ ছাড়াও মাইক্রোনেশিয়া ও টোগোর পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়াই ৫০টি দেশে ভ্রমণ করতে পারেন। পাসপোর্টের প্রভাবের তালিকায় সার্কভুক্ত দেশগুলোর অবস্থান হলো, আফগানিস্তান ৭৯ (পূর্বে ভিসা লাগবে না ৩৮ দেশে), ভারত ৫৯ (ভিসাহীন ৫৯), পাকিস্তান ৭১ (ভিসাহীন ৪৬), মালদ্বীপ ৫৩ (ভিসাহীন ৬৫), নেপাল ৭৯ (ভিসাহীন ৩৮), ভুটান ৭৯ (ভিসাহীন ৪০), শ্রীলংকা ৭০ (ভিসাহীন ৪৭)।

 

বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী পাসপোর্ট হলো যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের। তালিকায় এক নম্বরে থাকা দেশ দুটির পাসপোর্ট দিয়ে ভিসা ছাড়াই ১৪৭ টি দেশে যাওয়া যায়। আর তালিকার একদম তলানিতে ৮০তম অবস্থানে আছে সাওটম ও প্রিন্সিপে, ফিলিস্তিন, সলোমন আইল্যান্ড, মিয়ানমার ও দক্ষিণ সুদান। এই দেশগুলোর পাসপোর্টে মাত্র ২৮টি দেশে ভিসা ছাড়া প্রবেশাধিকার আছে।

বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীদের ৫০টি দেশে ভিসা ছাড়াই প্রবেশের অনুমতির কথা বলা হলেও পার্সপোর্ট ইনডেস্ক ডট অর্গ দেশগুলোর তালিকা প্রকাশ করেনি। আর উইকিপিডিয়া ও বিভিন্ন দেশের দূতাবাস সূত্রে নিন্মোক্ত ৪৫ টি দেশের ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

উইকিপিডিয়া ও বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীদের কোনো ভিসাই লাগবে না এমন দেশগুলো হলো :

. বাহামাস (চার সপ্তাহ পর্যন্ত)
২. বার্বাডোস (ছয় মাস)
৩. ডোমিনিকা (ছয় মাস)
৪. ফিজি (চার মাস)
৫. গাম্বিয়া (তিন মাস)
৬. গ্রানাডা (তিন মাস)
৭. হাইতি (তিন মাস)
৮. জ্যামাইকা
৯. লেসোথো (তিন মাস)
১০. মালাওয়ি (তিন মাস)
১১. মাইক্রোনেশিয়া (এক মাস)
১২. সেইন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস
১৩. সেইন্ট ভিনসেন্ট অ্যান্ড দ্য গ্রানাডিনস (এক মাস)
১৪. ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো
১৫. ভানুয়াতু (এক মাস)
১৬. মন্টসেরাত (তিন মাস)
১৭. টার্ক অ্যান্ড সিসেরো আইল্যান্ড (এক মাস)
১৮. ব্রিটিশ ভার্জিনিয়া আইল্যান্ড (এক মাস)
১৯. মাক্রোনেশিয়া (এক মাস)
২০. নিউয়ি (এক মাস)

Related image
বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়াই যেতে পারবেন, তবে সেখানে পৌঁছে ভিসা করতে হবে এমন দেশগুলো হলো:

১. ভুটান
২. বলিভিয়া (তিন মাসের ভিসা)
৩. কেপ ভার্দে
৪. কমোরোস
৫. গিনি বিসাউ (তিন মাস)
৬. মাদাগাস্কার (তিন মাস)
৭. মালদ্বীপ (এক মাস)
৮. মাওরিতানিয়া
৯. মোজাম্বিক (এক মাস)
১০. নেপাল (এক মাস)
১১. নিকারাগুয়া (তিন মাস)
১২. তিমরলেস্টে (এক মাস)
১৩. টোগো (সাত দিন)
১৪. তুভালু (এক মাস)
১৫. উগান্ডা
১৬. বুরুন্ডি
১৭. জিবুতি (এক মাস)
১৮. আজারবাইজান (এক মাস)
১৯. ম্যাকাউ (এক মাস)

 

 

বাংলাদেশের পাসপোর্ট থাকলে ভিসা লাগবে না তবে বিশেষ অনুমোদন লাগবে এমন দেশগুলো হলো :

১. কিউবা (টুরিস্ট কার্ড জোগাড় করতে হবে, মেয়াদ তিন মাস)
২. সামোয়া (ঢোকার অনুমতিপত্র থাকলেই হলো, মেয়াদ দুই মাস)
৩. সেচেলেস (ভ্রমণের অনুমতিপত্র থাকতে হবে, মেয়াদ এক মাস)
৪. সোমালিয়া (ওই দেশে থাকা কেউ স্পন্সর করলে ভিসা পৌঁছেও করা যাবে, যার মেয়াদ হবে এক মাস। তবে সোমালিয়া পৌঁছানোর দুদিন আগে সেখানকার বিমানবন্দরে বিষয়টি জানিয়ে রাখতে হবে)
৫. শ্রীলংকা (ভ্রমণের জন্য ইলেকট্রনিক অনুমোদনপত্র, মেয়াদ এক মাস)
৬. লাওস (সরকারি কোনো সফরের নথিপত্র থাকলে ভিসা প্রয়োজন হবে না)

read more
অপরাধখবরদেশ

পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !! ভিডিও সহ…

Capture

পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !! ভিডিও সহ…

 

পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !! ভিডিও সহ…পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !!

 

ভিডিও সহ…পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !! ভিডিও সহ…পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !!

ভিডিও সহ…পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !! ভিডিও সহ…

 

 

ভিডিও সহ…পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !! ভিডিও সহ…পুলিশ এই নিরীহ মহিলাটির সাথে কী করল দেখুন একবার, না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না !!

মাহিয়া মাহির গোপন ভিডিও দেখতে নিচের ছবিতে ক্রুন

 

read more
খবরদেশ

মারাত্মক ভাবে ইয়াবার ছোবলে বাংলাদেশ

3

বাংলাদেশে ইয়াবা নামে মাদকের ছোবল মারাত্মক আকার নিয়েছে। এখন সরকারি হিসাবেই দেশটিতে দিনে সেবন হয় ২০ লাখ ইয়াবা বড়ি। প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমার থেকে স্রোতের মতো ইয়াবা ঢুকছে বাংলাদেশে। যেখানে ২০১০ সালে ৮১ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট আটক হয়েছিল, সেখানে ২০১৬ সালে আটকের সংখ্যা দাঁড়ায় তিন কোটি। মিয়ানমারের বিদ্রোহী গোষ্ঠী ইউনাইটেড ওয়া স্টেট আর্মিসহ কিছু অপরাধী গোষ্ঠী ইয়াবা বিস্তারের প্রধান রুট করেছে বাংলাদেশকে।

২০১২ সালে চীন-থাইল্যান্ডের ‘মেকং সেফ’ চুক্তির পর থাইল্যান্ডে ইয়াবা পাচার কঠিন হয়ে গেলে এই অপরাধীরা বাংলাদেশকে টার্গেট করে এবং এখনো তারা ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে এ কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের লাখ লাখ তরুণ ইয়াবায় আসক্ত হয়ে নিজেদের নিঃশেষ করে দিচ্ছে। কম্বোডিয়ার আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সাংবাদিক নাথান এ থম্পসন মিয়ানমার ও বাংলাদেশে সরেজমিন অনুসন্ধান চালিয়ে একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন তৈরি করেন। গতকাল রবিবার প্রতিবেদনটি ছাপা হয়। জাপানের নিকেই এশিয়ান রিভিউ সাময়িকীতে ‘বাংলাদেশে ইয়াবা সমস্যা’ শীর্ষক ওই অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে কোথা থেকে ইয়াবা বাংলাদেশে ঢুকছে, কারা এর মরণ ছোবলের সবচেয়ে বড় শিকার ইত্যাদি বিষয় সবিস্তারে তুলে ধরা হয়।

read more
খবরদেশ

কোরবানির জন্য দেশের পশু দিয়েই চাহিদা মেটানো সম্ভব

6

দেশে যে পরিমাণ গরু-মহিষ, ছাগল-ভেড়া রয়েছে তাতে কোরবানির চাহিদা পুরোপুরি মেটানো সম্ভব বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ ডেইরি ফার্মারস অ্যাসোসিয়েশন।

একই সঙ্গে পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির পশু আমদানি ও চোরাই পথে পশু আসা বন্ধের দাবি জানিয়েছে তারা।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানায় সংগঠনটি।

পশু আমদানি বন্ধের দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, এবার দেশে কোরবানিযোগ্য পশু রয়েছে প্রায় ১ কোটি ১৫ লাখ ৫৫ হাজার। এর মধ্যে গরু-মহিষ আছে ৪০ লাখ। আর ছাগল-ভেড়া আছে প্রায় ৭৫ লাখ ৫৫ হাজার। যা দেশের মোট চাহিদা সম্পূর্ণভাবে পূরণ করতে সক্ষম।

এ অবস্থায় যদি পশু আমদানি ও চোরাইপথে পশু আসা বন্ধ না করা যায়, তাহলে দেশের মাংস উৎপাদনকারী খামার ব্যবসায়ীরা লোকসানের সম্মুখীন হবেন। যা ভবিষ্যতে দেশের মাংস শিল্পের বিকাশকে বাধাগ্রস্ত করবে।

গত ৯ জুলাই রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এফবিসিসিআই, আইবিসিসিআই ও ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্সের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত কৃষি ও কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ খাদ্যশিল্পের ওপর দুই দিনব্যাপী ব্যবসায়িক সম্মেলনে মাংস আমদানির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।

ডেইরি ফার্মারস অ্যাসোসিয়েশনের দাবি, মাংস আমদানির উদ্যোগ বাস্তবায়িত হলে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে দেশের বিপুলসংখ্যক গরু ব্যবসায়ী, কসাই ও ক্ষুদ্র খামারিরা মূলধন হারিয়ে পথে বসবেন। সেই সঙ্গে দেশের ট্যানারি শিল্পও হুমকির মুখে পড়বে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ডেইরি ফার্মারস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. ইমরান হোসেন, মহাসচিব শাহ ইমরান, সহসভাপতি আলি আজম শিবলী, যুগ্ম সচিব নাসিম উল্লাহ প্রমুখ।

read more
খবরদেশ

শরীয়তপুরে বিষধর সাপের ছোবলে গৃহবধূর মৃত্যু, বাঁচাতে গিয়ে আরও ৮৩ জন অসুস্থ

35

শরীয়তপুরের সখিপুরে বিষধর সাপের ছোবলে গৃহবধূ লিপি আক্তারের মৃত্যু হয়েছে। তবে সাপের দংশনের পরে তার সেবা করতে গিয়ে রহস্যজনকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন আরও ৮৩ জন।স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে লিপি আক্তার মাটির রান্নাঘরে কাজ করতে গিয়ে ইঁদুরের গর্তে তার পা আটকিয়ে গেলে গর্তে থাকা সাপ তাকে দংশন করে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি নীল বর্ণ ধারণ করে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

এই সময় ক্ষত স্থানটিতে বেঁধে দিতে গেলে একে একে অসুস্থ হয়ে পড়েন গ্রামের ৮৪ জন মানুষ। গ্রামবাসীর দাবি, লিপিকে যারা স্পর্শ করেন তারাই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

চিকিৎসকের পাশাপাশি স্থানীয় বাউল বকাউল নামে এক সাপুড়ে অসুস্থদের সেবা দেন। পরে লিপি আক্তারকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও তাকে বাঁচানো যায়নি।একই সঙ্গে এতগুলো মানুষ কিভাবে অসুস্থ হলো তার কোন ব্যাখ্যা মেলেনি। তবে ধারণা করা হচ্ছে গণ আতঙ্কে এমনটি হয়েছে।সখিপুর থানার ওসি একেএম মনজুরুল ইসলাম আকন্দ বলেন, আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়।

read more
খবরদেশ

টাকার অভাবে অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে কত কষ্টে দিন কাটছে আনোয়ারার?দেখুন তার কষ্টের কাহিনী। ‘ভিডিও সহ’

Capture

টাকার অভাবে অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে কত কষ্টে দিন কাটছে আনোয়ারার?দেখুন তার কষ্টের কাহিনী।

টাকার অভাবে অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে কত কষ্টে দিন কাটছে আনোয়ারার?দেখুন তার কষ্টের কাহিনী।

ভিডিওটি দেখুন নিচে…

অন্যেরা যা পড়ছে…..

মানুষের নখে সাদা ফুলের ন্যায় যা হয় তাকে নখের ফুল বলে। অনেকে বলে হাতের নখে ফুল হলে মানুষ ঘৃনা করে। আসলে এই নখের ফুল জিনিসটা কি? এটি…
কেন হয়? এর থেকে মুক্তির উপায়ই বা কি?

নখের নীচে সাদাটে ছোপ দাগ নখের নীচের মাংস এবং নখের মাঝের জায়গায় বাতাসের বুদ্বুদের উপস্থিতির কারণে হয়ে থাকে।
এটা যে সকল কারণে হয় সেগুলি হলঃ
– নখের ভিত্তিমূলে আঘাত পেলে
– কিডনির অকার্যকারিতার ফলে
– ছত্রাকের সংক্রমণের কারণে
– বংশগত কারণে
– কোন অঙ্গের অকার্যকারিতার কারণে

প্রোটিন এবং জিংকের অভাব হলে উপসর্গ সমূহঃ –

আঙ্গুলের উপরে সাদাটে দাগঃ নখে সাদা রেখার সারি এবং নখের রঙের পরিবর্তন যা শেষ পর্যন্ত সম্পূর্ণ সাদাতে পরিণত হয়।
– নখ এর আসল রূপ হারিয়ে রংবিহীন ও ভঙ্গুর হয়ে যায়।
– Leukonychia তে আক্রান্ত ব্যাক্তির বধিরতা, gingivitis, এবং hypekeratosis জাতীয় রোগ হতে পারে।

প্রাকৃতিক চিকিৎসাঃ
– আপনার খাদ্য তালিকায় প্রোটিন, ভিটামিন এবং প্রচুর জিংক সমৃদ্ধ খাবার যোগ করুন
– বার বার নেল পালিশ পরিবর্তনের অভ্যাস পরিহার করুন। তবে এর সাথে মানুষ ঘৃনা করার ব্যপারটি কুসংস্কার ব্যাতীত কিছুই নয়।

 

read more
1 2
Page 1 of 2