close

রাজনীতি

রাজনীতি

ময়মনসিংহ-৭ আসনে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন রওশন

Eju4a7_1544631705

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ-৭ (ত্রিশাল) আসন থেকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ। বুধবার (১২ডিসেম্বর) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, জেলা প্রশাসক (ডিসি) ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস।

 

এ আসনটিতে তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাফেজ রুহুল আমিন মাদানীকে সমর্থন দিয়েছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লড়াইয়ের জন্য গত ২৬ নভেম্বর ময়মনসিংহ-৭ (ত্রিশাল) আসন থেকে তার পক্ষে উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে মনোনয়ন তুলেছিলেন।

 

এর আগের দিন ২৫ নভেম্বর এই আসনটিতে সাবেক সংসদ সদস্য হাফেজ রুহুল আমিন মাদানীকে দলীয় মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ।

read more
রাজনীতি

বিএনপির নেতাকর্মীর সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ

BfjOc2_1544631299

ফাইল ফটো কিশোরগঞ্জে বিএনপির নির্বাচনী সমাবেশ চলাকালে নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় ৩জন বিএনপি কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আজ বুধবার (১২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার পর কুলিয়ারচর উপজেলার উসমানপুর ইউনিয়নের চমুরি বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ

 

ঘটনায় বিএনপির প্রার্থী শরীফুল আলম ও পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আহসানসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। বিএনপি প্রার্থী শরীফুল আলম বলেন, নির্বাচনী সমাবেশে চলার শেষ পর্যায়ে আমি বক্তৃতা করছিলাম। এসময় পুলিশ ও সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্যসহ আওয়ামী লীগের

 

নেতাকর্মীরা সমাবেশে হামলা চালায়। এতে আমি পায়ে আঘাত পাই। এছাড়াও ১৫ জনের মতো আহত হয়েছে এবং পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। কুলিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নান্নু মোল্লা বিডি২৪লাইভকে বলেন, নির্বাচনী সমাবেশের কাছ দিয়ে পুলিশের গাড়ি যাওয়ার সময়

 

বিএনপির সমাবেশ থেকে গাড়িতে হামলা চালায়। পরে পুলিশ এটি প্রতিরোধের চেষ্টা করে। এতে পুলিশের দুইজন এসআই এবং একজন এএসআই আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ৩জন বিএনপি কর্মীকে আটক করা হয়েছে।

সূএঃ- bd24live.com

read more
রাজনীতি

নির্বাচনে যে দিন থেকে নামবে সেনাবাহিনী

avyO9f_1523194615

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আগামী ২৪ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট ৯ দিন স্ট্রাইকং ফোর্স হিসেবে সেনাবাহিনী মোতায়েন করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আজ বুধবার (১২ ডিসেম্বর) এক বিজ্ঞপ্তিতে নির্বাচন কমিশন থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এছাড়াও ১৫

 

ডিসেম্বর থেকে ৬৬ জেলায় সীমিত আকারে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে আইনশৃঙ্খলা বিষয় নিয়ে বৈঠক করবে সেনাবাহিনী। এর আগে সিইসি কেএম নূরুল হুদা বলেছিলেন, আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে আগামী ১৫ ডিসেম্বরের পরেই স্বল্প পরিসরে সেনাবাহিনীকে মাঠে নামানো হবে। প্রতিটি

 

জেলায় সেনা সদস্যরা নিয়োজিত থাকবেন এবং জেলা পুলিশের সহযোগিতায় কাজ করবেন। সেনাবাহিনী মূলত পর্যবেক্ষকের ভূমিকা পালন করবে। সংসদ নির্বাচনে বিএনপিসহ তাদের জোট ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতাসহ সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়ে আসছে। অন্যদিকে, এর বিরোধিতা করে ক্ষমতাসীন

আওয়ামী লীগ বলেছে, ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতাসহ সেনা মোতায়েন করার কোনো সুযোগ নেই। স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে তারা দায়িত্ব পালন করতে পারে। তখন ইসি বলেছিল, সেনাবাহিনী মোতায়েন করার চিন্তা তাদের রয়েছে। তফসিলের পর কমিশন বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। উল্লেখ্য, বাংলাদেশে

নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে নিয়োগ নিয়ে নানা মহলের নানা মত রয়েছে। সেনাবাহিনীকে শুধু স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। এর মানে হচ্ছে, ভোটকেন্দ্রে তাদের উপস্থিতি থাকবে না। সেখানে বেআইনি সমাবেশ, গোলযোগ বা অরাজকতা হলে প্রয়োজনবোধে কেবল প্রশাসনিক ম্যাজিস্ট্রেট

 

তাদের ডাকতে পারবেন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য। ফৌজদারি কার্যবিধির ১২৯-১৩১ ধারা অনুসারে সামরিক বাহিনীকে এভাবে ডাকলে এ জন্য অন্য কোনো আইন পরিবর্তনের প্রয়োজন নেই। এভাবে ডাকা সামরিক বাহিনী ১৩১ ধারা অনুসারে উপযুক্ত ক্ষেত্রে কাউকে গ্রেপ্তার পর্যন্ত করতে পারে।

read more
রাজনীতি

হঠাৎ একদম শেষ মূহুর্তে এসে প্রার্থী পরিবর্তন করল বিএনপি!…

wC1Wm1_1506243620

মনোনয়ন প্রত্যাহারের একদম শেষ ২টি আসনে প্রার্থী পরিবর্তন করেছে বিএনপি। আসন দু’টি হলো চট্টগ্রাম-৮ ও শেরপুর-২। রোববার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয় থেকে এই দুটি আসনে সুফিয়ান ও ফাহিমকে চূড়ান্ত মনোনয়নের চিঠি দেওয়া হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম-৮ আসনে

 

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খানকে বাদ দিয়ে চট্টগ্রাম জেলা বিএনপির নগর বিএনপির সভাপতি আবু সুফিয়ানকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শেরপুর-২ আসনে এ কে এম মোখলেছুর রহমান রিপনের বদলে সাবেক হুইপ প্রয়াত জাহিদ আলী চৌধুরীর ছেলে ফাহিম চৌধুরীকে

 

দেওয়া হয়েছে চূড়ান্ত মনোনয়ন। এদিকে মানিকগঞ্জ-১ (শিবালয়, ঘিওর ও দৌলতপুর) আসনে প্রার্থী বদলে প্রয়াত খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে আব্দুল হামিদ ডাবলুকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেওয়ার গুঞ্জন ছড়ালেও তাকে কোনো চিঠি দেওয়া হয়নি। ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় একাদশ সংসদ নির্বাচনে

 

 

রোববারই মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন; এরপর কোনো দলের একাধিক প্রার্থী থাকলে ব্যালটে নাম থেকে যাবে।

read more
রাজনীতি

ভোট যেই পাক, ঘোষণা নৌকা মার্কায়

47579632_2077255659251305_475520795985051648_n-2018-12-09-13-17-08

চট্টগ্রাম বিভাগীয় পুলিশ সুপার নূরে আলম সরাসরি নৌকায় ভোট দেয়ার জন্য একটি সভায় আহবান জানিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। আজ রবিবার (৯ ডিসেম্বর) সকাল ১১ টায় নয়া পল্টনের বিএনপি অফিসে তিনি এ অভিযোগ

 

করেন। তিনি বলেন,তারা আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮ এর ফলাফল পরিবর্তন করতে প্রশাসনের নিকট উপর মহলের নির্দেশ রয়েছে বলে অলিখিতভাবে ও অপ্রকাশ্যে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবহিত করছেন। তিনি আরও বলেন, এমন কথাও শোনা যাচ্ছে যে, ভোটের আগের রাতে

 

সরকারি কাজের কথা বলে লোকাল থানা থেকে ওসি কিংবা ওসি তদন্ত কিংবা কোন দারোগা পুলিশের পিক-আপ বা রিকুইজিশন করা গাড়ী নিয়ে ভোটকেন্দ্রে ঢুকবে। তারা আসলে গাড়ীতে করে আওয়ামী লীগ ও তার অংগ সংগঠনের ৪/৫ জনকে সাথে নিয়ে ঢুকবে। বাইরে থেকে মনে হবে পুলিশ

নিরাপত্তা ব্যবস্থা চেক করার জন্য ভোটকেন্দ্রে ঢুকছে। এরা আসলে দলেবলে দ্রুততম সময়ে ব্যালট পেপারে সিল মারার কাজ করে বের হয়ে যাবে। রাতের অন্ধকারে মনে হবে পুলিশ নিরাপত্তা ব্যবস্থা চেকিং এর কাজ শেষ করে চলে যাচ্ছে। রিজভী বলেন, যারা সহজ সরল মন নিয়ে ভোটকেন্দ্র

পাহারা দিবেন বলে ভেবে রেখেছেন তাদের জানা দরকার যে, তাদেরকে বোকা বানিয়ে পুলিশ নিরাপত্তার আড়ালে ভোটকেন্দ্রে ঢুকে গণতেন্ত্রর সর্বনাশ ঘটাবে। বিএনপির এই নেতা বলেন, সরকারের হুকুমেই বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। নির্বাচন

 

কমিশনে একজন কমিশনারের সঠিক রায়কে উপেক্ষা করে স্বার্থসন্ধানী প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নেতৃত্বে বাকি কমিশনার’রা বিভক্ত ও প্রশ্নবিদ্ধ আদেশ দিয়ে মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন। গতকাল আপিল শুনানী চলাকালে আইনগতভাবে ন্যায়ের পক্ষে রায় না দিয়ে বিনা কারণে সময়ক্ষেপণ

করেছে নির্বাচন কমিশন। তিনি বলেন, সংবাদ পেয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের নোয়াখালী থেকে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বলেন যে, আইনগতভাবে খালেদা জিয়া নির্বাচন করতে পারবেন না। এর এক ঘন্টার মধ্যেই আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক

জাহাঙ্গীর কবির নানকের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশনে ছুটে যান এবং নির্বাচন কমিশনকে বেগম খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বিষয়ে সতর্ক করেন। প্রতিনিধি দল সাংবাদিকদের সামনে বলেন, ইসি-কে সতর্ক করতেই তারা কমিশনে এসেছেন এবং

 

আরও বলেন, সাংবিধানিকভাবে বেগম খালেদা জিয়ার নির্বাচন করার কোন সুযোগ নেই। এর কয়েক ঘন্টা পরেই নির্বাচন কমিশন বেগম খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বাতিল করে।

সুএঃ- bd24live.com

read more
রাজনীতি

#এই_মাত্র_পাওয়া: চূড়ান্তভাবে খালেদার তিনটি মনোনয়নই বাতিল!

4A515FBE-EE88-45D3-8065-2F471D73B584_cx0_cy13_cw0_w1023_r1_s

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ফেনী-১, বগুড়া-৬ ও বগুড়া- ৭ আসনের মনোনয়নপত্র বাতিল করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আজ শনিবার (৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশন এ সিদ্ধান্ত নেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ চার জন কমিশনার খালেদার মনোনয়ন বাতিলের

 

পক্ষে ছিল। বিপক্ষে ছিলেন একমাত্র কমিশনার মাহবুব তালুকদার। এরআগে গত ২ ডিসেম্বর মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাইয়ের সময়ে তিন আসনেই বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছিল। আসন গুলো হল, ফেনী-১, বগুড়া-৬ (সদর) ও বগুড়া-৭। রোববার

 

দুপুরে বগুড়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইকালে তার মনোনয়ন বাতিল করা হয়। বগুড়ার রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দুর্নীতির দুই মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের সাজা হওয়ায় তার মনোনয়নপত্র

বাতিল করা হয়েছে। এর আগে সকালে একই কারণে ফেনী-১ আসনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদ-উজ জামান। এরপর গত বুধবার (৫ ডিসেম্বর) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থিতা ফিরে পেতে

 

নির্বাচন কমিশনে আপিল করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তাঁর পক্ষে তিন আইনজীবী তিন সংসদীয় আসনের জন্য এই আপিল করেন। তবে আজ শনিবার (৮ ডিসেম্বর) চূড়ান্তভাবে খালেদার তিনটি মনোনয়ন পত্র বাতিল করে দেন নির্বাচন কমিশন

read more
রাজনীতি

বিএনপির চূড়ান্ত মনোনয়ন পেলেন যারা

1pDono_1507016284

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২০৬ জন দলীয় প্রার্থীর মনোনয়নের চূড়ান্ত তালিকা ঘোষণা করেছে বিএনপি। আজ শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর চূড়ান্ত এই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেন। ঐক্যফ্রন্ট এবং ২০ দলের প্রার্থীদের তালিকা শনিবার

 

জানানো হবে বলেও জানান তিনি। এক নজরে বিএনপির চূড়ান্ত তালিকা: ঢাকা বিভাগ : বিএনপির চূড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন- ঢাকা-২ আসনে ইরফান ইবনে আমান, ঢাকা-৩ আসনে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঢাকা-৪ আসনে সালাহউদ্দিন আহমেদ, ঢাকা-৮ আসনে মির্জা আব্বাস, ঢাকা-১০ আসনে আবদুল

 

মান্নান, নারায়ণগঞ্জ- ২ আসনে নজরুল ইসলাম আজাদ, নরসিংদী-১ আসনে খায়রুল কবীর খোকন, নরসিংদী-২ আসনে ড. আবদুল মঈন খান, নরসিংদী-৪ আসনে সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল, মানিকগঞ্জ-১ আসনে এমএ জিন্নাহ, মানিকগঞ্জ-২ আসনে ইঞ্জিনিয়ার মইনুল ইসলাম খান শান্ত,

মুন্সীগঞ্জ-২ আসনে মিজানুর রহমান সিনহা, মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনে আবদুল হাই, গাজীপুর-১ আসনে চৌধুরী তানভীর আহমেদ সিদ্দিকী, গাজীপুর-২ আসনে সালাহউদ্দিন সরকার, গাজীপুর-৫ আসনে ফজলুল হক মিলন, কিশোরগঞ্জ-১ আসনে রেজাউল করিম খান চুন্নু, কিশোরগঞ্জ-২ আসনে মেজর

(অব.) আখতারুজ্জামান রঞ্জন, কিশোরগঞ্জ-৪ আসনে অ্যাডভোকেট মো. ফজলুর রহমান, কিশোরগঞ্জ-৫ আসনে শেখ মুজিবুর রহমান ইকবাল, কিশোরগঞ্জ-৬ মো. শরীফুল আলম, টাঙ্গাইল-১ আসনে সরকার শহীদ, টাঙ্গাইল-২ আসনে সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, টাঙ্গাইল-৫ আসনে মেজর

 

জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান, টাঙ্গাইল-৬ আসনে অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী, টাঙ্গাইল-৭ আসনে আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, ফরিদপুর-১ আসনে শাহ মো. আবু জাফর, ফরিদপুর-২ আসনে শামা ওবায়েদ ইসলাম, ফরিদপুর-৩ আসনে চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, ফরিদপুর-৪ আসনে

ইকবাল হোসেন খন্দকার সেলিম, গোপালগঞ্জ-২ আসনে সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, গোপালগঞ্জ-৩ আসনে এসএম আফজাল হোসেন, মাদারিপুর-২ আসনে মিল্টন বৈদ্য, মাদারিপুর-৩ আসনে আনিসুর রহমান খোকন তালুকদার, শরিয়তপুর-২ আসনে শফিকুর রহমান কিরন, শরিয়তপুর-৩ আসনে

মিয়া নুরুদ্দিন অপু। সিলেট বিভাগ: সিলেট-৩ শফি আহমদ চৌধুরী, সিলেট-৪ দিলদার হোসেন সেলিম, সুনামগঞ্জ-১ আসনে নজির হোসেন, সুনামগঞ্জ-২ নাছির উদ্দিন চৌধুরী, সুনামগঞ্জ-৪ ফজলুল হক আসপিয়া, সুনামগঞ্জ-৫ মিজানুর রহমান চৌধুরী, মৌলভীবাজার-১ আসনে নাসির উদ্দিন

 

আহমদ মিঠু, মৌলভীবাজার-৩ এম নাসের রহমান, মৌলভীবাজার-৪ মুজিবুর রহমান চৌধুরী, হবিগঞ্জ-৩ আসনে জি কে গৌছ। চট্টগ্রাম বিভাগ: চট্টগ্রাম-১ আসনে নুরুল আমিন, চট্টগ্রাম-৪ আসনে ইসহাক কাদের চৌধুরী, চট্টগ্রাম-৬ আসনে জসিমউদ্দিন সিকদার, চট্টগ্রাম-৭ আসনে কুতুবউদ্দিন

বাহার, চট্টগ্রাম-৯ আসনে ডা. শাহাদাত হোসেন, চট্টগ্রাম-১০ আসনে আবদুল্লাহ আল নোমান, চট্টগ্রাম-১২ আসনে এনামুল হক এনাম, চট্টগ্রাম-১৩ আসনে সারওয়ার জামাল নিজাম, চট্টগ্রাম-১৬ আসনে জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, কুমিল্লা-১ আসনে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, কুমিল্লা-২ আসনে

খন্দকার মোশাররফ হোসেন, কুমিল্লা-৩ আসনে কাজী মুজিবুল হক, কুমিল্লা-৮ আসনে জাকারিয়া তাহের সুমন, কুমিল্লা-৯ আসনে কর্নেল (অব.) আনোয়ারুল আজিম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনে একরামুজ্জামান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনে প্রকৌশলী খালেদ মাহবুব শ্যামল, চাঁদপুর-১ আসনে মোশারফ

 

হোসেন, চাঁদপুর-২ আসনে ড. জালালউদ্দিন, চাঁদপুর-৫ আসনে ইঞ্জিনিয়ার মমিনুল হক, ফেনী-২ আসনে ভিপি জয়নাল আবেদীন, ফেনী-৩ আসনে আকবর হোসেন, নোয়াখালী-১ আসনে ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন, নোয়াখালী-২ আসনে জয়নুল আবদিন ফারুক, নোয়াখালী-৩ আসনে

বরকতউল্লাহ বুলু, নোয়াখালী-৪ আসনে মো. শাহজাহান, নোয়াখালী-৫ আসনে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও নোয়াখালী-৬ আসনে ফজলুল আজিম, লক্ষ্মীপুর-২ আসনে আবুল খায়ের ভূঁঁইয়া, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনে শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, কক্সবাজার-১ আসনে হাসিনা আহমেদ, কক্সবাজার-৩

আসনে লুৎফর রহমান কাজল, কক্সবাজার-৪ আসনে শাহজাহান চৌধুরী, পার্বত্য রাঙ্গামাটি মনিস্বপন দেওয়ান এবং পার্বত্য বান্দরবান সাচিং প্রু জেরি। ময়মনসিংহ বিভাগ: ময়মনসিংহ-২ আসনে শাহ শহীদ সারওয়ার, ময়মনসিংহ-৩ আসনে আহম্মেদ তায়েবুর রহমান হিরন, ময়মনসিংহ-৫

 

আসনে মোহাম্মদ জাকির হোসেন বাবলু, ময়মনসিংহ-৬ আসনে ইঞ্জিনিয়ার শামসুদ্দিন আহমদ, ময়মনসিংহ-৭ আসনে জয়নাল আবেদীন, ময়মনসিংহ-৯ আসনে খুররম খান চৌধুরী, ময়মনসিংহ-১১ আসনে ফখরুদ্দিন বাচ্চু, শেরপুর-১ আসনে ডা. শানসিলা, শেরপুর-২ আসনে একেএম

মোখলেসুর রহমান রিপন, শেরপুর-৩ আসনে মাহমুদ রুবেল, জামালপুর-২ আসনে সুলতান মাহমুদ বাবু, জামালপুর-৩ আসনে মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, জামালপুর-৪ আসনে ফরিদুল কবির তালুকদার, জামালপুর-৫ আসনে অ্যাডভোকেট শাহ ওয়ারেস আলী মামুন, নেত্রকোনা-১ আসনে

ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, নেত্রকোনা-২ আসনে আনোয়ারুল হক, নেত্রকোনা-৩ আসনে রফিকুল ইসলাম হিলালী, নেত্রকোনা-৪ আসনে তাহমিনা জামান শ্রাবনী। খুলনা বিভাগ: খুলনা-১ আসনে আমীর এজাজ খান, খুলনা-২ আসনে নজরুল ইসলাম মঞ্জু, খুলনা-৩ আসনে রকিবুল ইসলাম বকুল,

 

খুলনা-৪ আসনে আজিজুল বারী হেলাল, সাতক্ষীরা-১ আসনে হাবিবুল ইসলাম হাবিব, চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে মাহমুদ হাসান খান, কুষ্টিয়া-৪ আসনে সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী, ঝিনাইদহ-৪ আসনে সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, যশোর-১ আসনে মফিকুল হাসান তৃপ্তি, যশোর-৩ আসনে অনিন্দ্য ইসলাম

অমিত, যশোর-৪ আসনে ইঞ্জিনিয়ার টিএস আইয়ুব, যশোর-৬ আসনে আবুল হোসেন আজাদ, বাগেরহাট-১ আসনে মাসুদ রানা, বাগেরহাট-২ আসনে এমএ সালাম। রাজশাহী বিভাগ: জয়পুরহাট-১ আসনে ফজলুর রহমান, জয়পুরহাট-২ আসনে আবু ইউসুফ খলিলুর রহমান, বগুড়া-১ আসনে কাজী

রফিকুল ইসলাম, বগুড়া-৪ আসনে মোশাররফ হোসেন, বগুড়া-৫ আসনে গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনে শাহজাহান মিয়া, চাপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে আমিনুল ইসলাম, চাপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনে হারুনুর রশীদ, নওগাঁ-১ আসনে মোস্তাফিজুর রহমান, নওগাঁ-২ আসনে

 

শামসুজ্জোহা খান, নওগাঁ-৩ আসনে পারভেজ আরেফিন সিদ্দিকী, নওগাঁ-৪ আসনে ডা. শামসুল আলম প্রমাণিক, নওগাঁ-৫ আসনে জাহিদুল ইসলাম ধলু, নওগাঁ-৬ আসনে আলমগীর কবির, রাজশাহী-১ আসনে ব্যারিস্টার আমিনুল হক, রাজশাহী-২ আসনে মিজানুর রহমান মিনু, রাজশাহী-৩ আসনে

শফিকুল হক মিলন, রাজশাহী-৪ আসনে আবু হেনা, রাজশাহী-৫ অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, রাজশাহী-৬ আসনে আবু সাঈদ চাঁদ, নাটোর-১ আসনে কামরুন্নাহার, নাটোর-২ আসনে সাবিনা ইয়াসমিন, নাটোর-৩ আসনে দাউদার মাহমুদ, নাটোর-৪ আসনে আবদুল আজিজ, সিরাজগঞ্জ-১ রুমানা

মোরশেদ কনকচাঁপা, সিরাজগঞ্জ-৩ আসনে আবদুল মান্নান তালুকদার, সিরাজগঞ্জ-৫ আসনে আমিরুল ইসলাম খান আলিম, সিরাজগঞ্জ-৬ আসনে কামরুদ্দিন ইয়াহিয়া খান মজলিস, পাবনা-২ আসনে একেএম সেলিম রেজা হাবিব, পাবনা-৩ আসনে কেএম আনোয়ারুল ইসলাম, পাবনা-৪ আসনে

 

হাবিবুর রহমান হাবিব। রংপুর বিভাগ: পঞ্চগড়-১ আসনে ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, পঞ্চগড়-২ আসনে ফরহাদ হোসেন আজাদ, ঠাকুরগাঁও-১ আসনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে জাহিদুর রহমান, দিনাজপুর-৪ আসনে আক্তারুজ্জামান মিয়া, দিনাজপুর-৫ আসনে

রেজওয়ানুল হক, নীলফামারী-১ আসনে রফিকুল ইসলাম, লালমনিরহাট-১ আসনে হাসান রাজিব প্রধান, লালমনিরহাট-২ আসনে রোকনউদ্দিন বাবুল, লালমনিরহাট-৩ আসনে আসাদুল হাবিব দুলু, রংপুর-২ আসনে মোহাম্মদ আলী সরকার, রংপুর-৩ আসনে রিটা রহমান, রংপুর-৪ আসনে

এমদাদুল হক, রংপুর-৬ আসনে সাইফুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম-১ আসনে সাইফুল ইসলাম রানা, কুড়িগ্রাম-৩ আসনে তাসবিরুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম-৪ আসনে আজিজুর রহমান, গাইবান্ধা-৪ আসনে ফারুক কবির আহমেদ, গাইবান্ধা-৫ আসনে ফারুক আলম সরকার। বরিশাল বিভাগ: পটুয়াখালী-১

 

আসনে আলতাফ হোসেন চৌধুরী, পটুয়াখালী-৩ আসনে গোলাম মওলা রনি, পটুয়াখালী-৪ আসনে এবিএম মোশাররফ হোসেন, ভোলা-২ আসনে হাফিজ ইবরাহিম, ভোলা-৩ আসনে মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমেদ বীরবিক্রম, ভোলা-৪ আসনে নাজিমউদ্দিন আলম, বরিশাল-১ আসনে

জহিরউদ্দিন স্বপন, বরিশাল-২ আসনে সরদার শরফুদ্দিন আহমেদ সান্টু, বরিশাল-৩ আসনে অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদিন, বরিশাল-৫ আসনে মজিবুর রহমান সরোয়ার, বরিশাল-৬ আসনে আবুল হোসেন খান, ঝালকাঠি-১ আসনে ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর, ঝালকাঠি-২ আসনে জেবা আমিন খান, পিরোজপুর-৩ আসনে রুহুল আমিন দুলাল।

read more
রাজনীতি

জেনে নিন বিএনপির ২০৬ প্রার্থীর নাম (ভিডিও সহ)

Untitled-1 copy

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। ২০৬ আসনে চূড়ান্ত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে দলটি তাদের নেতৃত্বাধীন জোট ২০ দল এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে ৯৪টি আসন ছেড়ে দিল। আজ শুক্রবার (৭ ডিসেম্বর)

 

সন্ধ্যায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা অনেক প্রতিকূল অবস্থার মধ্যে এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। গণতান্ত্রিক অন্দোলন এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির অংশ হিসেবে আমরা এই নির্বাচনে আছি।’

 

বাকি ৯৪ আসন সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের আপিল নিষ্পত্তির পর বাকি আসনগুলোর বিষয়ে জোট ও ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আলোচনা করে শনিবার সিদ্ধান্ত জানানো হবে।’ বিএনপির ২০৬ প্রার্থীদের নাম শুনে নিন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মুখে।

 

read more
রাজনীতি

২ জানুয়ারি খালেদা জিয়ার মুক্তি : ডা. জাফরুল্লাহ…বিস্তারিত জানুন

Untitled-1 copy

শিমুল মাহমুদ: গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন হবে এবং ২ জানুয়ারি খালেদা জিয়া মুক্তি পাবে। তবে তিনি মুক্ত হবেন ন্যায় বিচারের দ্বারা, কারো দয়াতে না। শুক্রবার ৭ ডি‌সেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবের ৩য় তলার কনফারেন্স লাউঞ্জে জাতীয়তাবাদী

 

চালক দল এর উদ্যোগে নির্বাচন ব্যার্থ ও প্রশ্নবিদ্ধ হলে গণতন্ত্রের কি হবে ?’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তি‌নি বলেন, খালেদা জিয়ার প্রতি কোন দয়া চাই না, মুক্তিও চাই না তার প্রতি সুবিচার চাই। সুবিচার হলেই তিনি মুক্তি পাবেন। সরকারের উন্নয়নের সমালোচনা করে তিনি বলেন, এই সরকারের

 

আমল নামায় কি আছে উন্নয়ন জোয়ার। আর এই উন্নয়ন হলো ইয়াবা উন্নয়ন। বিনা বিচারে হত্যা গুম খুন। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, জনগণ বোকা না। সরকারের চোখে ছানি পরেছে, কিন্তু জনগণের চোখ খোলা আছে। উন্নয়ন অবশ্যই হয়েছে কোন সন্দেহ নাই আপনার ২০০৮ সালে

সম্পদ ছিল ৩ কোটি ১৯ লাখ, আজকে সেটা ৭ কোটি ২২ লাখ, এটা আপনার ঘোষিত হলফ নামার কথা। আপনি বলেছেন প্রবৃদ্ধি ১০ পারসেন্ট হবে, বাংলাদেশে আড়াই শত ধনী ব্যক্তি আছে এটাকে আপনি কয়েক হাজারে নিয়ে যাবেন। এই প্রবৃদ্ধিতে কার উন্নয়ন দেখেন? প্রতিটি পরিবারে খোঁজ নিয়ে

দেখেন অনেকের বয়স্ক পিতা মাথা বিনা চিকিৎসা ভুগছে। তাকে দেখার লোক নেই। সরকারের সমালোচনা করে তিনি আরো বলেন, যতই উন্নয়ন দেখিয়ে নির্বাচনকে কব্জা করার চেষ্টা করেন না কেনো আপনাদের সকল পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়ে যাবে। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, জনগণ

 

ভোর পাঁচটা থেকে ভোট কেন্দ্রে যাবে। আর আপনাদের দায়িত্ব জনগণকে ভোট কেন্দ্রে পৌঁছানো। কোনো ক্রমেই আনবেন না, নির্বাচনে থাকবো না, বা থাকছি না। এই অবাঞ্ছিত প্রশ্ন ভুলে যান। তিনি বলেন, আজকে দেশে এতো উন্নায়ন হয়েছে, হাসিনার সম্পদ দিগুণ হয়েছে, খালেদার পারসোনাল আয়

অর্ধেক নেমে এসেছে। এই তথ্য হাসিনা সরকারের নির্বাচন কমিশনের তথ্য থেকে। জয় আমাদের সুনিশ্চিত, এই সরকারের মৃত্যু ঘন্টা বেজে গেছে, মৃত্যুর নৌকা ডুবে যাচ্ছে ৩০ তারিখে। এক্ষেত্রে আপনাদের একটি মাত্র কাজ ভোট কেন্দ্রে আর ভয় নয়। সব ভয় শেষ হয়ে গেছে। তিনি বলেন, এই

সরকারের যারা অপর্কম করেছেন, আপনাদের বলতে চাই, আপনাদেরকে খালেদা জিয়ার মতো ভুগানো হবে না। আপনাদের জামিন দিয়ে দেওয়া হবে। সামরিক বাহিনীর উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা একটি বিশেষ প্রতিষ্ঠানের, আপনারা কোন দলের ক্যাডার না। পুলিশ ও আমলা দলীত হয়েছে,

 

আপনারা না। আপনারা দেশের নিরাপত্তা দেন, তাই আপনাদের ও অনেক দায়িত্ব রয়েছে। সংগঠনের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন কবির সভাপ‌তি‌ত্বে বিএন‌পি চেয়ারপারস‌নের উপ‌দেষ্টা ও সাবেক চিফ হুইপ জয়নুল আবদীন ফারুক, ‌বিএন‌পির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুস সালাম আজাদ, দেশ বাচাও মানুষ বাঁচাও আ‌ন্দোল‌নের সভাপ‌তি কে এম র‌ফিকুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

সূএঃ- আমাদের সময়.কম

read more
রাজনীতি

জনসভা কেন্দ্র করেই ঐক্যফ্রন্টের টার্গেট !!

Untitled-1 copy

১০ তারিখে রাজধানীতে বিএনপির ঘোষিত জনসভা স্থগিত করা হয়েছে। নির্বাচনের আগ মুহূর্তে রাজধানীতে এ জনসভা করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।ফখরুল আরো জানিয়েছেন, আগামী ১৭ ডিসেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার ঘোষণা করা

 

হবে। যদিও ৮ তারিখে ইশতেহার ঘোষণার কথা ছিল।আজ বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) রাত ৮টায় রাজধানীর মতিঝিলস্থ ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকের শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান।মির্জা ফখরুল বলেন, গণহারে মনোনয়ন পত্র বাতিল ও প্রতীক বরাদ্দের

 

বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। প্রতীক নিয়ে যাতে জনগণের সামনে হাজির হওয়া যায়, প্রতিটি জেলায় জেলায় এ প্রোগ্রামগুলো যাতে চালু রাখা যায়, এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এছাড়াও ঐক্যফ্রন্টের জনসভার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানান তিনি।আসন ভাগাভাগি ও প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে

কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, এ ব্যাপারে এখনো আলোচনা চলছে আমাদের। পরবর্তীতে এ বিষয়ে জানানো হবে।বৈঠকে উপস্থিত থাকা ঐক্যফ্রন্ট সূত্র জানিয়েছেন, জনসভা কেন্দ্র করে ঐক্যফ্রন্টের আন্দোলনের টার্গেট আছে। প্রার্থী ঘোষণার পর যদি লেভেল প্লেয়িং

ফিল্ড না হয়, হামলা মামলা ভয়ানক হারে বেড়ে যায় তাহলে সমাবেশ থেকে বৃহৎ অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।বৈঠক শেষে একান্ত আলাপে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ড.জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ড.কামাল সাহেবতো বলেছেন, সবাই আসো নির্বাচনে। যত রকম হয়রানি

 

থাকুক। কেউ হয়রানির বাইরে নয়। যেমন আজকে আমাকেও সকাল দশটা থেকে দুইটা পর্যন্ত হয়রানি করছে পুলিশ।ইশতেহার বিষয়ে তিনি বলেন, আগামীকাল হয়তো চুড়ান্ত করা হবে তবে ঘোষণা হবে ১৭ তারিখে।আন্দোলন বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কোনো কিছু যেন আমাদেরকে ভোটে

আসা থেকে বিরত না রাখতে পারে। মাঠে নামতে হবে কৌশলগত প্রস্তুতিও রাখতে হবে।এর আগে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডি সভাপতি আসম আব্দুর রব, কৃষক শ্রমিক

জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু,

জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন ও গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সাঈদ প্রমুখ।

read more
1 2 3
Page 1 of 3