close

প্রযুক্তি

প্রযুক্তি

দুবাই বিশ্বকে নতুন চমক দেখাল এমন আবিস্কার বাংলাদেশে কেমন চমক দেখাবে ((দেখুন ভিডিও ))

Untitled-1 copy

বি: দ্র : ই্উটিউব থেকে প্রকাশিত সকল ভিডিওর দায় সম্পুর্ন ই্উটিউব চ্যানেল এর।

এর সাথে আমরা কোন ভাবে সংশ্লিষ্ট নয় এবং আমাদের পেইজ কোন প্রকার দায় নিবেনা।ভিডিওটির উপর কারও আপত্তি থাকলে তা অপসারন করা হবে।

প্রতিদিন ঘটে যাওয়া নানা রকম ঘটনা আপনাদের মাঝে তুলে ধরা এবং সামাজিক সচেতনতা আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য।

ভিডিওটি দেখতে নিচে যান 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আরো পড়ুনঃ

এক ঘণ্টাযাবত শাফানের সাথে আমার কথা চলছে। আমি বুঝতে পারছিলাম যে, ওর ঘুম আসছে। সারাদিন ভালো পরিশ্রমই করতে হয়। ক্লান্ত হয়ে গেছে। ঘুমের প্রয়োজন ওর এখন। আজ সারাদিন পর কথা বলার সুযোগ পেয়েছি বলে, ওকে ঘুমানোর কথা খুব একটা বলিনি। তবুও বুঝেছিলাম, আমার মন খারাপ হবে বলে ফোন রাখতে পারছিল না, বেচারা। কখনো ও কথা বলে চলছে আবার কখনো আমি। হঠাৎ আবার দুজনেই চুপ হয়ে যাচ্ছিলাম। শাফান যখন চুপ থাকছিল, আমি বুঝছিলাম যে, ও ঘুমাচ্ছে। তখন

 

আমি আবার ফোন কেটে দিয়ে ওকে ফোন দিচ্ছিলাম। এভাবেই ওর ঘুম ভেঙ্গে দিচ্ছিলাম। শেষে ওকে বলেই ফেললাম, ঘুমাও তুমি। পরে কথা বলবো। ও বললো- আচ্ছা, সকালে তাহলে কল দিবো। আমিও আচ্ছা বলে রেখে দিলাম। তার দুই মিনিট পর আবার কল দিলাম। ও কল রিসিভ করলো। বললো- কি হয়েছে বল। -ঘুমিয়ে গিয়েছিলা? -হুম। -ওহ্। আচ্ছা, রাখবো? -ঠিক আছে, আল্লাহ হাফেজ। -শুনো, তুমি ঘুমাও কিন্তু ফোন রেখো না। -মানে কি? -মানে হলো, তুমি ঘুমিয়ে যাও কিন্তু ফোন রাখার দরকার নেই। ফোন এভাবেই রেখে ঘুমাও। আমি লাইনেই থাকি। -এভাবে কি ঘুমানো যায়। -হুম, যায়। -হুর, ঘুমাও তুমি। আল্লাহ হাফেজ। কাল কথা হবে। -আল্লাহ হাফেজ। শাফান বুঝলো-ই না যে আমি তাকে ঘুমন্ত অবস্থায় অনুভব করতে চেয়েছিলাম ফোনের ওপাশ থেকেই।

 

 

 

 

 

বেশ অনেকদিন হয় রাসূল (সাঃ) এর কাছে কোন ওহী আসেনা। একমাস, দু’মাস, তিন মাস… এভাবে একদম ছয়মাস ধরে ওহী আসা বন্ধ হয়ে গেলো। জিবরীল (আঃ) আগের মতো আল্লাহর প্রত্যাদেশ নিয়ে যখন-তখন হাজির হন না। যে জিবরীল (আঃ) কে দেখলে মুহাম্মদ (সাঃ) এর শরীরে কাঁপন ধরতো, আজ সেই জিবরীল (আঃ)-কে অনেকদিন না দেখতে পেয়ে মুহাম্মদ (সাঃ) যেন অস্থির হয়ে পড়লেন। সারাক্ষণ অধীর আগ্রহ নিয়ে পথ চেয়ে থাকেন। এই বুঝি জিবরীল (আঃ) এলো ওহী নিয়ে… উহু, জিবরীল (আঃ) আসেন না। মুহাম্মদ (সাঃ) এর জীবনের প্রতিটা সেকেন্ড, প্রতিটা মিনিট, প্রতিটা ঘণ্টা হয়ে উঠলো উদ্বেগ, উৎকন্ঠার। নানানরকম চিন্তা তখন মাথায় ভর করতে লাগলো তাঁর। ভাবতে লাগলেন,- ‘তাহলে কি আমি কোন ভুল করে ফেললাম? আমি কি নবী হওয়ার যোগ্যতা হারিয়ে ফেলেছি? আমার রব কি আমার উপর নাখোশ? তিনি কি আমাকে আর ভালোবাসেন না? যদি ভালোবাসেন, তাহলে আমার কাছে আর কেনো ওহী আসেনা? কেনো জিবরীল আগের মতো এসে আমাকে ‘ও মুহাম্মদ’ বলে ডাক দেয় না?’ চিন্তা আর পেরেশানিতে অস্থির মুহাম্মদ (সাঃ) অসুস্থ হয়ে পড়লেন। বিছানায় কাতর অবস্থাতেও তিনি অপেক্ষা করতে

 

থাকেন জিবরীলের জন্য। ওদিকে, মুহাম্মদ (সাঃ) এর কাছে ওহী আসা বন্ধ হয়ে যাওয়ার সংবাদ যখন চারদিকে চড়াও হলো, তখন মক্কার মুশরিকরা হাসাহাসি শুরু করলো আর বলতে লাগলো,- ‘হা…হা… মুহাম্মদের ভূত মুহাম্মদকে ছেড়ে পালিয়েছে…’। একে তো আল্লাহর ওহী আসা বন্ধ দীর্ঘদিন, তারউপর মুশরিকদের নানান কটুকথা, কটুবাক্য শুনে রাসূল (সাঃ) আরো ব্যথিত, আরো অসুস্থ হয়ে পড়লেন। অবশেষে, ঠিক ছ’মাস পরে জিবরীল (আঃ) এলেন। সাথে নিয়ে এলেন এতোদিনের শোক, অপেক্ষা, জ্বালা, অপমান, লাঞ্চনা-গঞ্জনার উপশম।

 

জানেন কি সেটা? সেটা হলো সূরা আদ-দ্বোহা। একদিকে ওহী বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অস্থিরতা, অন্যদিকে এই ঘটনায় মুশরিকদের আস্ফালন, সব মিলিয়ে রাসূল (সাঃ) এর জীবন যখন বিষিয়ে উঠলো, দুঃখ ভারাক্রান্ত হয়ে পড়লো, ঠিক তখনি জিবরীল (আঃ) নিয়ে এলেন এই সূরাটি। ‘শপথ সুবহে সাদ্বিকের’ ‘এবং শপথ রাতের যখন তা নিঝুম হয়’। এখানে আল্লাহ সুবাহান ওয়া’তালা শপথ করছেন সুবহে সাদ্বিক এবং নিঝুম রাতের। পুরো সূরার মর্মকথার সাথে এই দুটি উপমা খুব ভালোভাবে সম্পর্কযুক্ত।

 

 

 

 

 

 

 

read more
প্রযুক্তি

দুবাই পুলিশের হাতে চলে আসলো উড়ন্ত মোটর বাইক – যে বাইক দিয়ে…।। দেখুন ভিডিও সহ ।।

Untitled-2 copy

অত্যাধুনিক ল্যাম্বারগিনি, রোবট পুলিশ পর এবার দুবাই পুলিশ বাহিনীতে যোগ হয়েছে উড়ন্ত মোটরবাইক। দুবাই স্মার্ট সিটি পরিকল্পনার আওতায় পুলিশ বাহিনীতে উড়ন্ত মোটরবাইক সংযুক্ত করেছে দুবাই সরকার।

 

 

 

 

 

 

 

ভাসমান যানটির ডিজাইন করেছে রাশিয়ার টেক কোম্পানি হোভারসার্ফ। এক সিটের এই যানটি ঘণ্টায় ৪০ মাইল এবং ২৫ মিনিট আকাশে ভেসে বেড়াতে সক্ষম। এছাড়া ৬০০ পাউন্ড ওজন বহন করে অনাসেই চলতে পারবে যানটি।

 

 

 

 

উড়ন্ত মটরবাইকটির নাম দেয়া হয়েছে স্কারপিয়ন। চলতি বছর একটি টেক শোতে প্রথম প্রদর্শন করা হয়েছিল। তবে দুবাই সরকার এ ধরনের যান ব্যাপকভাবে তৈরি করতে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।(সূত্র: সিএনএন)

ভিডিওটি দেখতে নিচের ভিডিওতে ক্লিক করুন ।।

 

 

 

 

 

 

read more
ট্রিকস এবং টিপস

মেয়েদের যে গোপন বিষয়গুলো ছেলেদের কখনোই জানায় না !! জানলে অবাক হবেন !!

Untitled-1 copy

 

মেয়েদের-যে-গোপন-বিষয়গুলো-ছেলেদের-কখনো-জানায়-নাপ্রেমিকরা কি তাদের প্রেমিকার সম্পর্কে সব কিছু জানতে পারে? সম্পর্ক যত দীর্ঘ সময়েরই হোক না কেন প্রেমিকার মনের সব গোপন কথা প্রেমিক কখনোই জানতে পারবে না এ কথা হলফ করে বলা যায়। মেয়েদের কিছু কিছু সিক্রেট থাকে যেগুলো তারা কাউকেই বলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে না।
বিশেষ করে তারা কিছু বিষয় ভুলেও প্রেমিককে জানায় না। আসুন জেনে নেয়া যাক প্রেমিকাদের সেই ৬টি সিক্রেট বিষয়গুলো তারা প্রাণপণে লুকিয়ে রাখে প্রেমিকদের কাছ থেকে।

 

আসল বয়স
মেয়েদের আসল বয়স জানা আসলেই কঠিন। আসল বয়সটা ঠিক কত এটা বেশিরভাগ মেয়েরাই তার প্রেমিককে বলতে চায় না। এমনকি অনেক মেয়ে তার সবচাইতে কাছের মেয়ে বান্ধবীকেও নিজের আসল বয়স বলতে দ্বিধা বোধ করে। তাই নিজের প্রকৃত বয়সের চাইতে কয়েক বছর কমিয়ে বলার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায় অনেকের মধ্যেই। বয়স বললেই বুড়িয়ে যাবেন এমনটাই মনে করেন বেশিরভাগ নারী।

প্রেমের সংখ্যা
প্রেমিকার পূর্বে কত গুলো প্রেম ছিলো এটা জানাটা প্রেমিকদের জন্য মোটামুটি অসম্ভব একটি ব্যাপার। কারণ কোনো নারীই নিজের জীবনের সঠিক প্রেমের সংখ্যা বলে না কাউকে। প্রেমিককে তো একেবারেই নয়। এক্ষেত্রে বেশিরভাগ নারীই তাদের প্রেমিকের কাছে বলে থাকে যে এটাই তার জীবনের প্রথম প্রেম।

কুমারীত্ব
বর্তমান সমাজে নৈতিক অবক্ষয়ের কারনে অনেক মেয়েই বিয়ের আগেই কুমারীত্ব হারিয়ে ফেলছে। কিন্তু পরবর্তিতে দেখা যাচ্ছে সেই সম্পর্কটি টিকছে না এবং অন্য কোথাও বিয়ে করছে তারা। প্রেমিক কিংবা স্বামী যদি কুমারীত্ব নিয়ে প্রশ্ন করে তাহলে প্রায় সব মেয়েই কুমারীত্ব হারানোর বিষয়টি অস্বীকার করে কিংবা এড়িয়ে যায়, কিংবা বানোয়াট একটা কাহিনী বলে। কখনোই স্বীকার করে না যে ব্যাপারটি তার মর্জিতেই হয়েছে।

প্রেমের প্রস্তাব
বেশিরভাগ মেয়েরাই মনে করেন যে প্রেমের প্রস্তাবের সংখ্যা যার যত বেশি সে তত বেশি সুন্দরী ও যোগ্য। আর তাই নিজের প্রেমিকের কাছে অনেক মেয়েই প্রেমের প্রস্তাবের সংখ্যাটা বাড়িয়ে বাড়িয়ে বলে থাকে। জীবনে একটি প্রেমের প্রস্তাব না পেলেও অনেকেই সেটাকে বাড়িয়ে অনেক গুলো প্রেমের প্রস্তাব পাওয়ার কথা বলে থাকে।

বাবার সম্পত্তি
মেয়েরা বাবার সম্পত্তি নিয়ে বেশ কিছু বিষয় প্রেমিকের কাছে সিক্রেট রাখে। অধিকাংশ মেয়ের ধারণা যে যার বাবার যত বেশি সম্পদ, প্রেমিকের কাছে তার দাম তত বেশি। আর এই ধারণার কারনেই বেশিরভাগ প্রেমিকা তার প্রেমিকের কাছে বাবার ধন সম্পদের বিবরণটা কিছুটা রঙ-চং মাখিয়ে বাড়িয়ে বলে থাকে। অর্থাৎ প্রেমিকার বাবার প্রকৃত আর্থিক অবস্থার বিষয়টি অনেক প্রেমিকই জানতে পারে না।

read more
প্রযুক্তি

মোবাইল ফোনে পর্নোগ্রাফি দেখেন , তাহলে আরেকবার ভাবুন !

Untitled-1 copy

মোবাইল ফোনে পর্নোগ্রাফি দেখেন , তাহলে আরেকবার ভাবুন !

 

স্মার্টফোনে পর্নোগ্রাফি দেখার অভ্যাস থাকলে তা এখনই পরিত্যাগ করুন। লন্ডনের একদল গবেষক এক গবেষণায় দেখেছেন মোবাইল ফোনে পর্নোগ্রাফি দেখলে সফটওয়্যারের ক্ষতিসহ অনেক তথ্য ফাঁস হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায় 

ওয়ানডেরানামের মোবাইল কনসালটেন্সি ফার্মের তথ্য অনুসারে কম্পিউটার থেকে মোবাইলে পর্নোগ্রাফি দেখলে ডিভাইসে ম্যালওয়্যার এবং ম্যালাশাস বাগ সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি থাকে। কেননা মোবাইল ফোনে ডেস্কটপ কিংবা ল্যাপটপের মতো একই ধরণের নিরাপত্তা বিষয়ক সেটিংস থাকে না। তবে শুধুমাত্র পর্নোগ্রাফিকেই বিপজ্জনক বলেনি ফার্মটি।

পর্নোগ্রাফি সাইটের সাথে গ্যাম্বলিং সাইট, অ্যাড নেটওয়ার্ক এবং স্ক্যাম সাইটগুলোও ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করেছে ফার্মটি।ওয়ানডেরা ফার্মের সম্পাদক লিয়ানা লা পোর্টা এক ব্লগ পোস্টে লেখেন, ‘কম্পিউটারে না দেখে মোবাইল ফোনে পর্নোগ্রাফি দেখলে গ্রাহকের নিরাপত্তা ঝুঁকি বেড়ে যায়।

 

 

 

স্মার্টফোনের অপারেটিং সিস্টেমগুলো, বিশেষত অ্যান্ড্রয়েড ডেস্কটপের মতো অতোটা নিরাপদ নয়। সেক্ষেত্রে হ্যাকাররা খুব সহজেই পর্নোগ্রাফি সাইটগুলোর মাধ্যমে ডিভাইসে ম্যালওয়্যার ছড়াতে পারে।’

এই গবেষণাটি সম্পন্ন করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের ১০ হাজার ভিন্ন ভিন্ন মোবাইল ডিভাইস খতিয়ে দেখা হয়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে প্রতি ১০ হাজার গ্রাহকের মধ্যে ৩৪ জন প্রত্যেকদিন স্মার্টফোনে পর্নোগ্রাফি দেখেন। আর ইন্টারনেটে থাকা ৫০টি পর্নো সাইটের মধ্যে ৪০টি সাইটে ম্যালওয়্যার রয়েছে।

আর একবার এসব ম্যালওয়্যার আপনার ফোনে ঢুকে গেলে তারা ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে হ্যাকারদের দিয়ে দিতে পারে। আর হ্যাকাররা এসব তথ্য ব্যবহার করে আপনাকে খুব সহজে প্রতারিত করতে পারে।

তাছাড়া গবেষণায় দেখা গেছে, শুক্রবারে মোবাইল ফোনে গ্রাহকরা সবচেয়ে বেশি পর্নোগ্রাফি দেখেন। আর সোমবারে সবচেয়ে কম পর্নোগ্রাফি দেখেন গ্রাহকরা। রাত ৮ টার পর থেকে মোবাইলে পর্নোগ্রাফি দেখার মাত্রা বেড়ে যায়। আর রাত ২-৩টা মোবাইল ভিত্তিক পর্নোগ্রাফি বেশি দেখেন গ্রাহকরা

 

read more
প্রযুক্তি

সাইকেল আবিষ্কার করলেন ,বাতাসের সাহায্যে চলা চাঁপাইনবাবগঞ্জের মোশারফ ………!

Untitled-1 copy

সাইকেল আবিষ্কার করলেন ,বাতাসের সাহায্যে চলা চাঁপাইনবাবগঞ্জের মোশারফ ………!

 

 

 

সাইকেল কি আর বাতাসে চলে? সাইকেল তো পা দিয়ে প্যাডেল করে চালাইতে হয়। কিংবা মটর সাইকেল যদি হয় তাহলে তো প্রয়োজন হবে পেট্রোলের। তবে মোশারফের আজব সাইকেল পেট্রোল কিংবা বিদ্যুতে চলে না। আজব এই সাইকেল চলে বাতাসের সাহায্যে। কি বিশ্বাস হচ্ছে না তো- তাহলে ঘটনাটি খুলেই বলছি। মূলত আজব এই সাইকেলের চালকের আসনের ঠিক পেছনেই রয়েছে স্ট্যান্ডের ওপরে অ্যালুমিনিয়ামের বাটি দিয়ে তৈরি চারটি পাখা

 

সাইকেলটি চলার সময় বাতাসে ওই পাখাগুলো ঘুরতে থাকে। তখন সেটা থেকেই উৎপাদন হয় বিদ্যুৎ। সেই বিদ্যুতে চার্জ হয় ব্যাটারি। আর এই ব্যাটারি থেকেই চালু হয় সাইকেলে লাগানো ছোট্ট একটি মোটর। এভাবে মোটর চালিত এই ইলেকট্রিক বাইক সামনের দিকে এগিয়ে যায় এই সাইকেলটি তৈরি করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর থানার রামচন্দ্রপুর হাট এলাকার বাসিন্দা মোশারফ হোসেন। তিনি ইলেকট্রোনিক্স যন্ত্রপাতি সারাইয়ের কাজ করেন।

গত দুই বছর তিনি বাতাস চালিত এই সাইকেলটি ব্যবহার করে আসছেন। মোশারফ হোসেন জানান, অনেক দিন থেকেই তিনি ভাবছিলেন কি করে বিনা খরচে চলে এমন সাইকেল তৈরি করা যায়। যে ভাবনা থেকেই এটি তৈরি করা হয়েছে। সাইকেলটি তৈরি করতে তার খরচ হয়েছে ২৫ হাজার ৩০ হাজার টাকা। এটি ঘণ্টায় সব্বোর্চ ৫০ কিলোমিটার গতি তুলতে পারে। মোশারফ দাবি করেন, তার সাইকেলটি তৈরি করার সময় একবার মাত্র ব্যাটারিতে চার্জ দেয়া হয়েছে।

এরপর থেকে ব্যাটারিতে আর কোনো চার্জ দেয়ার প্রয়োজন হয়নি। এটি যতোই চলবে ততোই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্যাটারি চার্জ হয়ে যাবে। তিনি দীর্ঘ দুই বছর ধরে সাইকেলটি চালাচ্ছেন কোনো ধরনের জ্বালানি খরচ ছাড়াই। ব্যাটারি চালিত অটোরিকশার মতোই চাবি দিয়ে সাইকেলটি চালু করতে হয়। চালানোর ধরনও একই রকমের।

হাতের পিকআপে গতি কমানো ও বাড়ানো যায়। ইতোমধ্যে মোশারফের বিনাখরচের ইলেকট্রিক বাইকটি এলাকাবাসীর নজর কেড়েছে। অনেকেই এ ধরনের সাইকেল তৈরি করানোর জন্য তার কাছে ধন্য দিচ্ছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত তিনি কাউকেই এই সাইকেল তৈরি করে দেননি। তিনি জানান, এটা তার শখ। বাণিজ্যিকভাবে এটি তৈরির কোনো ইচ্ছেই তার নেই।

read more
ট্রিকস এবং টিপস

মহিলাদের যে ৪টি ছলনার ফাঁদে ভুলেও পা দিবেন না !বিস্তারিত জানতে ছবিতে টাচ করুন

154433shakib-shuvosri_kalerkantho_pic

মহিলাদের যে ৪টি ছলনার ফাঁদে ভুলেও পা দিবেন না !বিস্তারিত জানতে ছবিতে টাচ করুন

 

 

 

সাধে কী আর মহিলাদের প্রায়শই “ছলনাময়ী” বলেন পুরুষরা? যদিও এই বিশেষণ নিয়ে মহিলাদেরও আপত্তির শেষ নেই। মহিলারা নাকি ৬৪ কলার অধিকারিনী। প্রায়ই বির্তকের জন্ম দেয় এই প্রবাদটি। কিন্তু কথাটা কি সত্যি? নাকি মিথ্যা? সত্যিই কি মহিলারা কিছু বিশেষ ছলনায় প্ররোচিত করে ফেলেন পুরুষদেরকে? আটকে ফেলেন ছলনার ফাঁদে? জেনে নিন তাদের ৫টি ছলনা সম্পর্কে যেগুলো সহজেই পুরুষদেরকে ফাঁদে ফেলতে পারে।

 

চোখের জল: মহিলারা খুব সহজেই একজন পুরুষকে ফাঁদে ফেলতে পারে। কীভাবে? চোখের দুই ফোঁটা জলই একজন পুরুষকে ফাঁদে ফেলার জন্য যথেষ্ট। এক্ষেত্রে তেমন কোনও কষ্ট ছাড়াই যে কোনও কাজে পটিয়ে ফেলা যায় একজন পুরুষকে।

কেন, দিল তো বাচ্চা হ্যায় কি সিনেমার কথাটা মনে নেই? অফিসের কাজের চাপে অতিষ্ট হওয়ার অভিনয় করে চোখের জল ফেলেই কি সুন্দর আরেক সহকর্মীকে গাধার মতোন খাটিয়ে নিতেন নায়িকা। কারণ, আজও অধিকাংশ পুরুষই নারীর চোখের জলকে অবহেলা করতে পারেন না।

 

 

ইমোশনাল অত্যাচার: সাধে কি আর গানটি লেখা হয়েছিল? ‘ইমোশনাল অত্যাচার’ করে একজন নারী খুব সহজেই একজন পুরুষকে পটিয়ে ফেলতে পারে। একবার ইমোশোনাল অত্যাচারের শিকার হলে ভালোমন্দ বিচার করার ক্ষমতা অনেক পুরুষই হারিয়ে ফেলে। বরং সবকিছুর জন্য নিজেকেই দোষী মনে হরে আর সেই দোষ থেকে মুক্তি পেতে অনেক কিছুই করতে প্ররোচিত হন।

 

সৌন্দর্য দিয়ে: নারীর রূপ একজন পুরুষের মন ভোলানোর সবচেয়ে ধারালো অস্ত্র। সুন্দরী নারীর রূপে মোহিত হন না, এমন বুকের পাটা ক’কন পুরুষের রয়েছে? একজন সুন্দরী নারীর আবেদন অগ্রাহ্য করার মত মানসিক শক্তি খুব কম পুরুষেরই আছে। তাই সুন্দরী নারীরা খুব সহজেই পুরুষদেরকে ফাঁদে ফেলতে পারে। বলতে গেলে পুরুষ নিজে গিয়ে ধরা দেয় সৌন্দর্যের ফাঁদে।

 

রেঁধেছি যতনে: ঠাট্টা করে অনেকে বলেন, পুরুষের মনের রাস্তা নাকি তাঁর পেট হয়ে যায়। আর পুরুষের মন জেতার সবচেয়ে সহজ উপায় হলো সুস্বাদু রান্না করে খাওয়ানো। একজন মহিলা যদি নিজের হাতে রান্না করা জিভে জল আনা খাবার খাইয়ে একজন পুরুষকে পটাতে চায়, তাহলে সেটা ফেরানোর সাধ্য খুব কম পুরুষেরই আছে।-কলকাতা২৪

read more
প্রযুক্তি

জেনে নিন, মোবাইল নম্বর গোপন রেখে কল করার নিয়মাবলী

Capture

জেনে নিন, মোবাইল নম্বর গোপন রেখে কল করার নিয়মাবলী

 

ফোন করার সঙ্গে সঙ্গেই মোবাইল নম্বর ফোন রিসিভকারী ব্যক্তি পেয়ে যান। এ ক্ষেত্রে মেয়েরা অনেক সময় সমস্যায় পড়ে যান। অপরিচিত ব্যক্তিরা শুধু শুধু ডিস্ট্রাব করতে থাকে। তাই এখনই জেনে নিন, কিভাবে মোবাইল নম্বর গোপন রেখে কল করা যায় তার নিয়মাবলী।

 

 

মূলত এ সমস্য থেকে আপনি নিশ্চিত মুক্তি পেতে পারেন কিছু কার্যকরি অ্যাপস ব্যবহার করে। নানা ধরনের অ্যাপ অবশ্য আগে থেকেই রয়েছে যেগুলো

 

ব্যবহার করা যায় কিন্ত তারজন্য আবার একটি ভুয়া নম্বর ব্যবহার করতে হয়। এজন্য অবশ্য বেশ ঝামেলায় পড়তে হয়। এসব অ্যাপের সাহায্যে কাওকে ফোন করার সময় বদলে ফেলা যায় নিজের মোবাইল নম্বর। এক্ষেত্রে অ্যাপটি ব্যবহারকারীর আসল নম্বর লুকিয়ে রাখে এবং ব্যবহারকারীর দেওয়া অন্য একটি ভুয়া নম্বর প্রদর্শন করে থাকে।
অনেকেই পরিচয় বদলের এই জাতীয় অ্যাপ হিসেবে ব্যবহার করছেন যেমন Voxox, Lifehacker, Spoofcard, Tracebust, CallerIDFaker ইত্যাদি। এসব অ্যাপের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছে Tracebust অ্যাপটি।

প্রাথমিকভাবে এর ট্রায়াল ভারসন ব্যবহার করা যাবে, কিন্তু পরবর্তীতে ব্যবহারের ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীকে মূল্য পরিশোধ করতে হবে। প্রযুক্তি বিশ্বের এইসব সুযোগগুলো ব্যবহারের সুযোগ নিচ্ছে অনেকেই। তবে পাওয়ানাদারের কাছ থেকে পাওয়া উদ্ধারে এমন অ্যাপ আপনি ব্যবহার করতেই পারেন।

read more
প্রযুক্তি

এই ধরনের র‌্যাপার পেলেই ফাটিয়ে ফেলেন, ফেলে দেন? এমন আর করবেন না,কারন জানলে অবাক হবেন।

Capture

এই ধরনের র‌্যাপার পেলেই ফাটিয়ে ফেলেন, ফেলে দেন? এমন আর করবেন না,কারন জানলে অবাক হবেন!!!

 

 

 

জিনিসটি সকলের চেনা, এর পোশাকি নাম বাবল র‌্যাপার। নতুন কেনা জিনিসপত্রের বাক্সে প্রায়শই দেখা মেলে এই র‌্যাপারের। প্লাস্টিকের তৈরি নমনীয় ও স্বচ্ছ এই র‌্যাপার ভঙ্গুর জিনিসকে সুরক্ষিত রাখে।

নতুন কেনা কোনও জিনিসের প্যাকেটের ভিতরে এই জাতীয় র‌্যাপার পেলে আপনি কী করেন? নিশ্চয়ই বাবলগুলো বসে বসে ফাটান, কিংবা পুরো র‌্যাপারটাই ফেলে দেন। কিন্তু জানেন কি, ঘরোয়া নানা ক্ষেত্রে এই র‌্যাপার অত্যন্ত কাজের জিনিস? কী কী কাজে লাগে এই ধরনের বাবল র‌্যাপার? আসুন,জেনে নিন এবেলার তথ্য অনুযায়ী।

১. গরম জিনিস ধরা: যে কোনও গরম জিনিস হাতে ধরার সময় তাতে যদি একটি বাবল র‌্যাপার জড়িয়ে নেন, তা হলে আর হাতে ছ্যাঁকা লাগার ভয় থাকবে না। চায়ের কেটলির হাতলে একটি বাবল র‌্যাপার জড়িয়ে সেলোটেপ দিয়ে আটকে দিতে পারেন। তা হলে আর উনুন থেকে গরম কেটলি নামানোর সময় হাতলটা ধরার জন্য বার বার ন্যাকড়ার খোঁজ করতে হবে না।

২ ঠান্ডার হাত থেকে মুক্তি: শীত যদি তেমন জাঁকিয়ে পড়ে, আর ঘরের জানলা যদি হয় কাঁচের, তাহলে অনেক সময়ে জানলা বন্ধ করেও শীতের দাপট থেকে মুক্তি মেলে না। সেক্ষেত্রে ঘর গরম করার একটা সহজ কৌশল কাজে লাগাতে পারেন। জানলার কাঁচে একটু জল ছিটিয়ে তার উপরে চেপে ধরুন একটি বাবল র‌্যাপার। খেয়াল রাখবেন, র‌্যাপারের সমতল দিকটা যেন আপনার দিকে থাকে। র‌্যাপার কাঁচে আটকে যাবে সহজেই। এবার দেখবেন, ঘর দিব্যি গরম থাকছে। ঘরে আলোরও অভাব হবে না, কারণ র‌্যাপারের মধ্যে দিয়ে দিব্যি আলো ঢুকবে ঘরে। আর বাইরে থেকে কাচ ভেদ করে কেউ আপনার ঘরে উঁকিঝুঁকিও মারতে পারবে না।

৩. ব্যাগকে ঠিকঠাক রাখা: চামড়া বা অন্য কোনও উপাদানে তৈরি ব্যাগ অনেক দিন অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থাকলে, তা দুমড়ে মুচড়ে যায়। যদি ব্যাগের ভিতরে কয়েকটি বাবল র‌্যাপার দলা পাকিয়ে রেখে দেন, তাহলে আর ব্যাগ দুমড়ে যাওয়ার দুশ্চিন্তা থাকবে না।

৪. দেওয়ালকে সুরক্ষিত রাখা: ঘরে কি এমন কোনও দরজা রয়েছে, যেটা খুললেই দেওয়ালে গিয়ে ধাক্কা মারে? সেক্ষেত্রে দেওয়ালে একটা বিশ্রী দাগ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এরকমটা হলে দরজা খোলার সময়ে দরজার যে অংশটি দেওয়ালকে স্পর্শ করছে, সেখানে লাগিয়ে দিন একটি বাবল র‌্যাপার। ব্যস, দেওয়ালে দাগ হওয়ার চিন্তা থেকে মুক্তি।

৫. এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় জিনিসপত্র নিয়ে যাওয়া: হয়তো দূরে কোথাও বেড়াতে যাচ্ছেন, আর সঙ্গে একটা চিনামাটির কাপডিশের সেট কিংবা কাচের গ্লাসের সেট নিয়ে যাওয়া জরুরি। কাপডিশ বা গ্লাসগুলিকে মুড়ে নিন বাবল র‌্যাপারে। তারপর নিশ্চিন্তে প্যাক করে নিন অন্য লাগেজের সঙ্গে। কাপডিশ বা গ্লাস ভেঙে যাওয়ার চিন্তা থাকবে না কোনও।

৬. পানীয়কে ঠান্ডা কিংবা গরম রাখা: ঠান্ডা পানীয়ের বোতল বা ক্যান ফ্রিজ থেকে বার করার পরে তার গায়ে জড়িয়ে দিন বাবল র‌্যাপার। ঘরের তাপমাত্রায় পানীয় চট করে গরম হয়ে যাওয়ার ভয় থাকবে না। গরম চা বা পানীয়ের গ্লাসেও র‌্যাপার জড়িয়ে নিলে পানীয় গরম থাকবে বহুক্ষণ।

৭. স্টিয়ারিং বা বাইকের হাতলের গ্রিপ: গাড়ির স্টিয়ারিং হুইল কিংবা বাইকের হাতলে বাবল র‌্যাপার জড়িয়ে সেলোটেপ দিয়ে আটকে দিন। দামি গ্রিপ লাগানোর প্রয়োজন হবে না আর।

৮. শাকসবজি সুরক্ষিত রাখা: বাড়ির সবজি রাখার বাস্কেটের ভিতরের দিকটি বাবল র‌্যাপার দিয়ে মুড়ে দিন। টমেটো বা কলার মতো সবজি বা ফল রাখার সময়ে অসাবধানে সেই সমস্ত শাকসবজি ফেটে যাওয়া বা নষ্ট হয়ে যাওয়ার ভয় থাকবে না।

৯. খাবার গরম অথবা ঠান্ডা রাখা: বাজারে যাওয়ার থলি বা পলিথিনের ভিতরের দিকটি বাবল র‌্যাপার দিয়ে মুড়ে নিন। এবার ওই ব্যাগে করে বাজার থেকে আইসক্রিম নিয়ে আসুন। দেখবেন, আইসক্রিন গলে যাচ্ছে না। একইভাবে কোনও পাত্রে গরম খাবার ভরে পাত্রটিকে যদি বাবল র‌্যাপার দিয়ে মুড়ে দেন, তাহলে সেই খাবার অনেকক্ষণ গরম থাকবে।

১০. শীতকালে গাছপালাকে সুরক্ষিত রাখা: টবের গাছপালা অনেক সময়ে শীতে শুকিয়ে যায়। গাছগুলিকে ঢেকে রাখুন বাবল র‌্যাপার দিয়ে। তাহলে আর পাতা শুকোনোর ভয় থাকবে না।

কাজেই এবার থেকে নতুন কেনা জিনিসের সঙ্গে বাবল র‌্যাপার পেলে, সেগুলি যত্ন করে রেখে দিন। অনেক কাজে লাগে কিন্তু এই র‌্যাপার।

read more
ট্রিকস এবং টিপসপ্রযুক্তি

মেমোরিকার্ড থেকে মুছে যাওয়া তথ্য ফিরিয়ে আনার উপায় জেনে নিন

13

অনেক সময় নিজের অসাবধানতার কারণে আপনার পিসি অথবা মোবাইল ফোনে ব্যবহৃত মেমোরিকার্ডের সকল তথ্য হঠাৎ ডিলেক্ট হয়ে যায়। এ সময় আপনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হয়তো মুছে যায়। তবে আর চিন্তা নেই। এখন থেকে আপনি আপনার মেমোরিকার্ড থেকে মুছে যাওয়া সকল তথ্য পুনরায় ফিরিয়ে আনতে পারবেন। তবে তা করার জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হলো-

১.http://www.piriform.com/recuva এই লিঙ্কটি থেকে রিকুভা নামের সফটওয়্যার ডাউনলোড করে আপনার পিসিতে ইনস্টল করুন।

২. সফটওয়্যারটি চালু করে প্রদর্শিত তালিকা থেকে Pictures অপশন নির্বাচন করে Next বাটনে ক্লিক করুন।

৩. এবার মুছে যাওয়া ছবি যে ফোল্ডার বা স্থানে ছিল তা নির্বাচন করে আবারও Next বাটনে ক্লিক করুন। এতে করে সফটওয়্যারটি মেমোরি কার্ড স্ক্যান করে মুছে যাওয়া JPEG ফরমেটের ছবি প্রদর্শন করবে। Switch to advanced mode বাটনে ক্লিক করে অন্যান্য ফরমেটের ছবিও খুঁজে পাওয়া সম্ভব।

৪. এরপর আপনার হারানো ছবিগুলা নির্বাচন করার পরে Recover বাটনে ক্লিক করুন এবং আপনি এই ছবিগুলা কোথায় সেভ করে রাখতে চান সেটি ব্রাউজ অপশনে গিয়ে ঠিক করে দিন। এর পরপরই আপনার হারানো ছবিগুলো ওই ফাইলে ফেরত চলে আসবে।

read more
ট্রিকস এবং টিপসপ্রযুক্তি

আর নয় সেক্সুয়াল ট্যাবলেট একটি রসুনই পারবে একটানা ৩ঘন্টা সুখ দিতে !! বিস্তারিত ভিডিওটিতে

41

আর নয় সেক্সুয়াল ট্যাবলেট একটি রসুনই পারবে একটানা ৩ঘন্টা সুখ দিতে !! বিস্তারিত ভিডিওটিতে

আর নয় সেক্সুয়াল ট্যাবলেট একটি রসুনই পারবে একটানা ৩ঘন্টা সুখ দিতে !! বিস্তারিত ভিডিওটিতে

আর নয় সেক্সুয়াল ট্যাবলেট একটি রসুনই পারবে একটানা ৩ঘন্টা সুখ দিতে !! বিস্তারিত ভিডিওটিতে

 

 

 

 

ভিডিওটি দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন 

read more
1 2
Page 1 of 2